×

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

চার্চিল ব্রাদার্স: ১ (অ্যান্টনি)

মোহনবাগান: ১ (ডিকা)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চলতি আই লিগে একের পর এক ধাক্কায় রীতিমতো নড়বড়ে মোহনবাগান শিবির। এমন অবস্থায় অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়বে দল, তা অতি বড় সবুজ-মেরুন ভক্তও ভাবেননি। তবে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা শনিবার গলা ফাটিয়েছিলেন বাগানের জয়ের জন্যই। কারণ গঙ্গাপারের ক্লাব জিতলেই লিগ তালিকায় সুবিধা পেত লাল-হলুদ। ম্যাচের ৭৭ মিনিট পর্যন্ত মনে হয়েছিল ইস্টবেঙ্গল ভক্তদের প্রার্থনাই হয়তো পূরণ হতে চলেছে। কিন্তু তেমনটা হতে দিলেন না চার্চিলের অ্যান্টনি। বাগান ফুটবলারের ভুলেই এদিন একপ্রকার জেতা ম্যাচ শেষ হল ড্র দিয়ে।

ফিরতি ডার্বি হারের পর থেকেই আই লিগে দিশাহীন সোনি নর্ডিরা। গোকুলামের সঙ্গে ড্র করার পরই বাকি ম্যাচগুলো মোহনবাগানের কাছে হয়ে দাঁড়িয়েছিল নিয়মরক্ষার। স্বাভাবিকভাবেই তাই যেন ফোকাস হারিয়ে ফেলছিলেন খালিদ জামিলের ছেলেরা। তবে কোচ দৃঢ় গলাতেই বলেছিলেন, এখন শুধু জিতে সম্মানজনক জায়গায় থেকে লিগ শেষ করাই লক্ষ্য। এদিন ডিকা-নর্ডিদের বডি ল্যাঙ্গুয়েজেও কিন্তু তেমনটাই ধরা পড়ল। জয়ের জন্য প্রথম থেকেই চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছিলেন তাঁরা। ৩৯ মিনিটে গোলের মুখ খুলতেও সফল হন ডিকা। তবে সোনির সেটপিস থেকে গোলের সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে ফল অন্যরকম হতেই পারত। তবে এদিনের ড্রয়ের জন্যও দায়ী খালিদের ছেলেরাই। কারণ পেনাল্টিকে কাজে লাগিয়েই খেলায় সমতায় ফেরে চার্চিল।

এই ম্যাচের পর মোহনবাগানের সংগ্রহ ২৩ পয়েন্ট। ম্যাচ ড্র করে ষষ্ঠস্থানেই রইল তারা। এদিকে, ১৭ ম্যাচে চার্চিলের পয়েন্ট ৩০।চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়ার পর বাগান সমর্থকদের আশা ছিল সুপার কাপে খেলা। সেখানেও সরাসরি খেলতে গেলে প্রথম চারের মধ্যে থাকতে হবে। এদিনের পর তাও প্রায় অসম্ভব হয়ে দাঁড়াল।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং