BREAKING NEWS

২১ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ৪ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

নেরোকাকে গোলের মালা, প্রেমদিবসে লিগ জয়ের আরও কাছে মোহনবাগান

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 14, 2020 6:51 pm|    Updated: February 14, 2020 9:14 pm

An Images

মোহনবাগান: ৬ (গঞ্জালেজ ৩, মোরান্তে, বাবা, রোমারিও)
নেরোকা: ২ (আদজা, সুভাষ সিং)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বসন্তের প্রথম দিনই ফুল ফুটল বাগানে। যার সৌরভে আই লিগ জয়ের আরও কাছে পৌঁছে গেল সবুজ-মেরুন। সমর্থকদের ঝকঝকে ফুটবল উপহার দিয়ে আই লিগ মরশুমের নবম জয়টি তুলে নিল কিবু-ব্রিগেড। কল্যাণীতে দুর্বল নেরোকা এফসিকে গোলের মালা পরালেন গঞ্জালেজ-মোরান্তেরা। দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক করলেন ফ্রান গঞ্জালেজ (Fran González)। গোল পেলেন মোরান্তে, বাবা এবং রোমারিও। যাঁর ফলে ৩ পয়েন্টের পাশাপাশি গোলপার্থক্যও অনেকটা বাড়িয়ে নিল সবুজ মেরুন। সেই সঙ্গে প্রেমদিবসে একেবারে পারফেক্ট উপহার পেয়ে গেলেন অগণিত মোহনবাগানপ্রেমী মানুষ।

দুর্দান্ত ফর্ম এবং আগের ম্যাচে নেরোকাকে ৩-০ গোলে হারানোর দরুন এই ম্যাচে নামার আগে এমনিতেই ফেভরিট তকমা জুড়ে গিয়েছিল মোহনবাগানের (Mohun Bagan) নামের পাশে। সামান্য ভয় যা সবুজ-মেরুন সমর্থকরা পাচ্ছিলেন, সেটা হল আত্মতুষ্টি। কোচ ভিকুনা অবশ্য আগে থেকেই ফুটবলারদের সতর্ক করে দেন, তাঁরা যেন নেরোকাকে দুর্বল না ভাবেন। কারণ, আগের ম্যাচের নেরোকার থেকে এই নেরোকা অনেক শক্তিশালী। কোচের সেই সতর্কবাণী আপ্তবাক্যের মতো গ্রহণ করেন সবুজ মেরুন ফুটবলারা। এবং একেবারে গোড়ার দিক থেকেই দুর্বল প্রতিপক্ষের উপর সিংহগর্জনে ঝাঁপিয়ে পড়েন তাঁরা। ফলস্বরূপ ম্যাচের প্রথমার্ধেই পাঁচটি গোল করে ফেলে মোহনবাগান। পালটা দুটি গোল শোধ করলেও ম্যাচে লড়াই দেওয়ার ধারেকাঝে পৌঁছাতে পারেনি পাহাড়ে দলটি।

[আরও পড়ুন: জয় অধরাই, পাঞ্জাবের কাছে আটকে লিগে দুঃসময় অব্যাহত ইস্টবেঙ্গলের]

মোহনবাগানের হয়ে প্রথম গোলটি ১১ মিনিটে করেন গঞ্জালেজ। এক মিনিটের মধ্যেই আসে দ্বিতীয় গোল। এবারে ব্যবধান বাড়ান মোরান্তে। এরপর ২৪ ও ৪৫ মিনিটে আরও দুটি গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পুরো করেন গঞ্জালেজ। ৩৬ মিনিটে একটি গোল করেন বাবা দিওয়ারাও। মোহনবাগানের এই গোলের বন্যার মধ্যে দুটো গোল করেছে নেরোকাও। ফিলিপে আদজা এবং সুভাষ সিং, দলের দুই নতুন স্ট্রাইকারই এদিন গোল পান। দ্বিতীয়ার্ধে খানিকটা লড়াই দেয় নেরোকা। বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করে তাঁরা। তবে, শেষ অবধি সেই সুযোগ কাজে আসেনি। উলটে সুযোগ বুঝে ব্যবধান বাড়িয়ে নিয়েছে সবুজ-মেরুনই। ৬৯ মিনিটে বাগানের হয়ে ষষ্ঠ গোলটি করলেন রোমারিও। মোহনবাগানের এদিনের জয়ের মধ্যে অস্বস্তির কাঁটা হয়ে রইল ধনচন্দ্রর লালকার্ড। নেরোকা স্ট্রাইকারে একটি শট গোললাইন থেকে বাঁচাতে গিয়ে হ্যান্ডবল করে ফেলেন তিনি। যার জেরে লালকার্ড দেখতে হয়। আগামী দিনে তাঁর অনুপস্থিতি ভোগাবে কিবুকে।

[আরও পড়ুন: জিতেই চলেছে মোহনবাগান, পাঞ্জাবকে হারিয়ে লিগের শীর্ষেই রইল সবুজ-মেরুন শিবির]

জয়ের ফলে লিগ টেবিলের শীর্ষস্থানে ব্যবধান আরও বাড়ল সবুজ-মেরুন। ১২ ম্যাচে বাগানের সংগ্রহ ২৯ পয়েন্ট। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মিনের্ভার থেকে তাঁরা ১১ পয়েন্টে এগিয়ে। তৃতীয় স্থানে থাকা গোকুলামের থেকে মোহনবাগান এগিয়ে ১২ পয়েন্টে। কেরলের দলটি অবশ্য একটা ম্যাচ কম খেলেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement