৫ আশ্বিন  ১৪২৫  শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  |  পুজোর বাকি আর ২৪ দিন

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ভারত- ৩ (মনবীর সিং ২, সুমিত পাস্সি)

পাকিস্তান- ১ (মহসিন আলি)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বহুদিন পর ভারত-পাক মহারণ। তাও আবার ফুটবল মাঠে। বাড়তি উত্তেজনা ছিলই ঢাকায়। কিন্তু ধারে-ভারে এগিয়ে ছিল স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের ছেলেরাই। তাই প্রত্যাশিতভাবেই পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে সাফ কাপের ফাইনালে চলে গেল ভারত। ম্যাচ ৩-১ গোলে জিতল ব্লু ব্রিগেড। জোড়া গোল মনবীর সিংয়ের, আর একটি গোল তাঁর পরিবর্ত হিসাবে নামা সুমিত পাস্সির। তবে প্রচুর সুযোগ নষ্ট করলেন ভারতীয় ফুটবলাররা। যা ফাইনালের আগে চিন্তায় রাখবে কোচ কনস্ট্যানটাইনকে। ম্যাচ আরও বড় ব্যবধানে জিততে পারত ভারত। ম্যাচের শেষ লগ্নে ভারতের জালে বল জড়িয়ে দেন পাকিস্তানের মহম্মদ আলি। সেটাও ডিফেন্সের ভুলে।

[ঘরের মাঠেই শাপমুক্তি, ৮ বছর পর কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগান]

ভারত-পাক ম্যাচ বলেই ফুটবলারদের উপর বাড়তি পড়ুক চাইছিলেন না কনস্ট্যানটাইন। তাই ছেলেদের বলেছিলেন, আর পাঁচটা ম্যাচের মতোই দেখতে সেমিফাইনালকে। শেষ মোলাকাতেও পাকিস্তানকে হারিয়েছিল ভারত। তাই জেতার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ছিল ভারত। তবে ম্যাচের প্রথমার্ধে প্রচুর চেষ্টা করেও পাকিস্তানের গোলমুখ খুলতে পারেনি ভারত। সাফল্য আসে দ্বিতীয়ার্ধে। ৪৮ মিনিটে প্রথম গোল মনবীরের। তারপর ৬৯ মিনিটে দ্বিতীয় গোল আসে তাঁর ডান পা থেকে। তার কিছুক্ষণ পর তাঁকে তুলে নেন কোচ। পরিবর্তে নামান সুমিত পাস্সিকে। ৮৪ মিনিটের মাথায় তিনিও গোল পেয়ে যান। ম্যাচের শেষ লগ্নে ভারতের ডিফেন্সের ভুলে গোল পেয়ে যান পাকিস্তানের মহম্মদ আলি। গোটা ম্যাচেই কর্তৃত্ব রেখে খেলে ভারত। যদিও দু’দলের দুই ফুটবলার লাল কার্ড দেখেন। ভারতের চাঙতে ও পাকিস্তানের মহসিন আলি। ফাইনালে মালদ্বীপের বিরুদ্ধে খেলবে ভারত।

[৮ বছর পর লিগে শাপমোচন, ইতিহাস গড়ে বাগানের নয়া ‘ক্ষিদ্দা’ শংকরলাল]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং