BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

জয়ের গন্ধ পেয়ে ঝোড়ো ইনিংস ভারতের, অনন্য রেকর্ড কোহলির

Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 8, 2018 4:04 pm|    Updated: December 8, 2018 4:15 pm

India vs Australia day 3 result

ভারত: ২৫০ (পূজারা- ১২৩) ও ১৫১/৩ (রাহুল-৪৪)
অস্ট্রেলিয়া: ২৩৫ (হেড-৭২)

তৃতীয় দিনের খেলা শেষে ভারত এগিয়ে ১৬৬ রানে

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছিল মেঘ-রোদ্দুরের খেলা। মাঝেমধ্যে বৃষ্টিতে অ্যাডিলেড থাকল জনশূন্য। তবু দিনের শেষে প্রথম টেস্টের ব্যাটন রইল বিরাট কোহলির হাতেই। এখনও বলার মতো সময় আসেনি ঠিকই। তবে, ম্যাচের গতিপ্রকৃতির রেশ ধরে যদি ব্যাখ্যা করতে বসা হয়, তাহলে ভারতের দিকে পাল্লা ভারী না বলে উপায় নেই। প্রথম ইনিংসেই ভারত ১৫ রানে এগিয়ে গিয়েছিল। দিনের শেষে তারা অস্ট্রেলিয়ার উপর চাপিয়ে দিতে পারল ১৬৬ রান। হাতে থাকল ৭ উইকেট। ক্রিজে রয়েছেন সেই বিশ্বস্ত চেতেশ্বর পূজারা (৪০) ও অজিঙ্ক রাহানে (১)।

প্রথম ইনিংসে সেভাবে নজর কাড়তে পারেননি বিরাট কোহলি। তবে দ্বিতীয় ইনিংসেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ফের একটি রেকর্ড গড়ে ফেললেন ভারত অধিনায়ক। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তিনি হলেন পঞ্চম জন, যিনি ১০০০ রান করলেন টেস্টে। এর আগে রাহুল দ্রাবিড়, ভিভিএস লক্ষ্মণ, বীরেন্দ্র শেহবাগ ও শচীন তেণ্ডুলকর অস্ট্রেলিয়ায় এই মর্যাদার আসনে বসে এসেছেন। এবার কোহলি ঢুকে পড়লেন সেখানে। এই অনন্য কৃতিত্বের জন্য তাঁর দরকার ছিল মাত্র ৫ রান। আসলে, কোহলি-শচীনরা হলেন সেই জাতের ব্যাটসম্যান যাঁরা সঠিক সময় সঠিক জায়গায় নিজেকে তুলে ধরতে জানেন।

[অ্যাডিলেডে কপিল দেব ও জাহির খানের অনন্য রেকর্ড ছুঁলেন ইশান্ত]

পূজারার সঙ্গে কোহলি যতক্ষণ মাঠে থাকলেন, ততক্ষণ বোঝা যায়নি ভারত বিপদে পড়তে পারে। এমনিতেই অস্ট্রেলিয়ার এই দলটি অনেক দুর্বল। বিশেষ করে ওয়ার্নার ও স্মিথ বল-বিকৃতির দায়ে সাসপেন্ড থাকায় দলটার ভিত নড়ে গিয়েছে। তার উপর অন্যান্য অজি বোলাররাও ক্রমাগত ব্যর্থ হচ্ছেন। তাই বলে কোহলি, চেতেশ্বরদের কৃতিত্বকে কোনও অংশে ছোট করা যাবে না। প্রথম ইনিংসে চেতেশ্বর সেঞ্চুরি করে দলকে দিয়েছিলেন অগাধ ভরসা। কোহলি সেবার খোয়াজার অসাধারণ ক্যাচ ধরার কাছে নিজেকে নত করতে বাধ্য হয়েছিলেন। এবার কোহলি-পূজারা দু’জনই যেন কঠিন ইস্পাত মানসিকতা নিয়ে নিজেদের ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। হ্যাজেলউড, মিচেল স্টার্ক কিংবা স্পিনার লিয়নকে সেভাবে দেখা যায়নি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মাথার উপর চড়ে বসতে।

সকাল থেকে বৃষ্টির জন্য বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থেকেছে। পরিবেশে আর্দ্রতার পরিমাণও বেড়েছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যে ব্যাট করা কিন্তু সহজ কথা নয়। দরকার ধৈর্য্য আর টিকে থাকার জন্য অসীম লড়াই। দু’টো ব্যাপারেই পূজারা এবং কোহলি সেটাই দেখিয়ে গেলেন। যদিও দিনের শেষের দিকে লিওনের বলে ফিঞ্চের হাতে ক্যাচ দিয়ে বসেন কোহলি। ৩৪ রানে ফেরেন তিনি। পূজারার সঙ্গে জুটিতে উঠে আসে ৭১ রান। 

[সচেতনতা বাড়াতে পূজারার ডিফেন্সেই আস্থা কলকাতা পুলিশের]

আসলে টেস্টে হাঁকপাক করে খেলার মানসিকতা ছেড়ে যদি কোনও ব্যাটসম্যান না বেরিয়ে আসতে পারে, তাহলে ব্যর্থ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি। প্রথম ইনিংসে তারই প্রতিফলন ঘটেছিল ভারতের টপ অর্ডারে। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ওপেনিং জুটি লোকেশ রাহুল ও মুরলী বিজয় দু’জনেই সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন। ওপেনিং পার্টনারশিপে ওঠে ৬৩ রান। মুরলী বিজয় আউট হয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই ফিরে যান লোকেশ রাহুলও। তবে দিনের শেষে অ্যাডিলেডে যে এগিয়ে ভারতই, তা বলাই বাহুল্য।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে