৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ভারত: ২৯৭ (রাহানে ৮১, জাদেজা ৫৮, রোচ ৪-৬৬)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ১৮৯-৮ (চেজ ৪৮, ইশান্ত ৫-৪২)

ভারত ১০৮ রানে এগিয়ে। 

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একজন বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেয়েও প্রথম দিকে ছিলেন না প্রথম একাদশে। তাঁর গুরুত্ব বোঝা গেল সেই সেমিফাইনালে গিয়ে। যে ম্যাচ তাঁর দুর্দান্ত অর্ধশতরানের পরও হেরে যায় ভারত। জাদেজা থেকে যান বিশ্বকাপ সেমিফাইনালের ট্র‌্যাজিক নায়ক হয়ে। অপরজন খাতায় কলমে টেস্টে টিম ইন্ডিয়া এক নম্বর বোলার। কিন্তু, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে জাতীয় দলের ধারেকাছে নেই। তিনি ইশান্ত শর্মা। টিম ইন্ডিয়ার এই দুই তারকায় অ্যান্টিগায় কোহলিদের অ্যাডভান্টেজ পাইয়ে দিল।

[আরও পড়ুন: ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের প্রাণনাশের হুমকি, অসম থেকে গ্রেপ্তার তরুণ]

 ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৯ রান। এর আগে ভারতের প্রথম ইনিংস শেষ হয়েছে ২৯৭ রানে। ভারতের প্রথম ইনিংসের থেকে এখনও ১০৮ রান পিছিয়ে ক্যারিবিয়ানরা।

বড় কোনও অঘটন না ঘটল ভারত প্রথম ইনিংসে বড়সড় লিড পেতে চলেছে। কিন্তু, ভারতের এই যে তিনশোর কাছাকাছি রান তোলা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের উপর চাপ সৃষ্টি। কোনওটাই সম্ভব হত না আট নম্বরে নেমে জাদেজা ৫৮ রানের দূর্মূল‌্য ইনিংসটা না খেললে। এটা অনস্বীকার্য যে, তিনশোর তটভূমিতে ভারতের পৌঁছনোর প্রথম এবং সর্বপ্রথম কারণ টিমের সহ-অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানের চরম প্রতিকুলতা সামলে লড়াকু ৮১ রানে ইনিংস। কিন্তু দ্বিতীয় কারণ-অবশ‌্যই রবীন্দ্র জাদেজা। ভারত এ দিন দিনের খেলা শুরু করে ২০৩-৬ স্কোর নিয়ে। কিন্তু খেলা শুরু হতে না হতে দ্রুতই আউট হয়ে যান ঋষভ পন্থ (২৪)। পন্থ আউট হওয়ার পর একমাত্র জাদেজা ছাড়া ব‌্যাটসম‌্যান বলতে আর কেউ ছিলেন না। সব বোলার। ইশান্ত শর্মা, মহম্মদ সামি এবং জশপ্রিত বুমরাহ। অতএব হিসেবটা খুব পরিষ্কার ছিল-ভারত আড়াইশো পেরোবে কি না তা সম্পূর্ণ নির্ভর করে ছিল ‘স‌্যর’ জাদেজার উপর।

[আরও পড়ুন: প্রথম টেস্টে ব্যাটিং ভরাডুবি, ইনিংস বাঁচাল রাহানের হাফ সেঞ্চুরি]

ইশান্ত শর্মার বিশেষ ধন‌্যবাদ প্রাপ‌্য ১৯ রান করার জন‌্য নয়। প্রাপ‌্য ৬২-টা বল খেলার জন‌্য। জাদেজা তাঁকে নিয়ে হাফসেঞ্চুরি পার্টনারশিপ করে গেলেন। ইশান্ত যখন আউট হন ভারত ২৬৭। তখনও নিশ্চিত নয় তিনশোর আশেপাশে যাওয়া যাবে কি না? দু’বলের মধ‌্যে আউট মহম্মদ শামিও। কিন্তু টিমের এগারো নম্বর জসপ্রীত বুমরাকে সঙ্গে নিয়ে টিমের রান তিনশোর কাছে নিয়ে চলে গেলেন জাদেজা। আর সেই হাফসেঞ্চুরি কত দামি ছিল? সেটা ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির স্বতঃস্ফূর্ত হাততালি থেকেই স্পষ্ট।

জাদেজার দুর্দান্ত ইনিংসের পর বাকি কাজটা ছিল বোলারদের। কাজটা দায়িত্ব নিয়ে করলেন টিম ইন্ডিয়ার সবচেয়ে সিনিয়র বোলার ইশান্ত শর্মা। তাঁর অনবদ্য লাইন-লেন্থ আর সুইংয়ের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করল ক্যারিবিয়ানরা। ইনিংসের শুরুটা অবশ্য ভালই করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু, ৩৬ রানে প্রথম উইকেটের পতনের পরই শুরু হয় ভাঙন। শুরুটা করেন মহম্মদ শামি। শেষ হয় ইশান্ত ঝড়ে। এক এক করে পাঁচ পাঁচটি উইকেট দখল করেন টিম ইন্ডিয়ার পেসার। এই নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ৯ বার পাঁচ বা তার বেশি উইকেট পেলেন ইশান্ত। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব‌্যাটসম‌্যানদের মধ‌্যে সবচেয়ে বেশি করেছেন আপাতত রস্টন চেজ (৪৮)। বরং তুলনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের পারফরম‌্যান্স ভাল। কেমার রোচ ৪ উইকেট পেয়েছেন ৬৬ রানে। শ‌্যানন গ‌্যাব্রিয়েল পান তিন উইকেট। দিনের শেষে যা পরিস্থিতি তাতে বড় কোনও অঘটন না ঘটলে প্রথম ইনিংসে বড় লিড পাবে টিম ইন্ডিয়া।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং