BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সৌরভের পর ব্যারেটো, নির্বাচনী প্রচারে ফের চমক টুটু শিবিরের

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: October 1, 2018 2:20 pm|    Updated: October 1, 2018 2:21 pm

Jose barreto campaigns for Tutu Bose in Mohun bagan election

স্টাফ রিপোর্টার: বেহালায় নেমেছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বউবাজারে নামলেন ব্যারেটো। অর্থাৎ ক্রিকেট ও ফুটবলে বাংলার দুই জনপ্রিয় খেলোয়াড় জানিয়ে দিলেন, মোহনবাগানকে বাঁচাতে হলে টুটু শিবিরের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। অঞ্জনরা হলেন আয়ারাম-গয়ারামের দল।

[ মোহনবাগান নির্বাচনে বড় চমক, টুটু শিবিরের প্রচারে সৌরভ]

রবিবার মোহনবাগান টেন্টে ছিল মনোনয়ন পত্র পরীক্ষার দিন। নির্বাচক কমিটির তিন বিচারপতির মধ্যে এদিন আসেননি দিলীপ সেন। বাকি দু’জন অসীম রায় ও সুশান্ত চট্টোপাধ্যায় বিকেল চারটে নাগাদ প্রথমে টেন্টে এসে পুরো মাঠ প্রদক্ষিণ করেন। উদ্দেশ্য ছিল, মোহনবাগান মাঠে নির্বাচন করা সম্ভব কিনা তা খতিয়ে দেখা। তারপর তাঁরা বসেন ৫৬টা মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া প্রতিটি প্রার্থীর সামনে পরীক্ষা করা। যথারীতি সেই পরীক্ষা করতে গিয়ে দু’জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়ে যায়। সহ-সচিব পদে দাঁড়ানো কুণাল ঘোষ ও অঞ্জন মিত্র গোষ্ঠীর হয়ে কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম প্রার্থী বাণীব্রত বসুর মনোনয়নপত্রে ভুল ধরা পড়েছে। কুণাল অবশ্য নির্বাচক কমিটির কাছে আবেদন জানান, তাঁর প্রার্থীপদ যেন খারিজ করা না হয়। নিয়ম না জানায় এই ভুল। তাই বিচারপতিরা যেন এই ব্যাপারটা খতিয়ে দেখেন। যদিও মোহনবাগান তাঁবু থেকে বেরোনোর সময় নির্বাচক কমিটির দুই প্রাক্তন বিচারপতি অসীম রায় ও সুশান্ত চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, জমা পড়া ৫৬টি মনোনয়ন পত্রের মধ্যে ৫৪টি সঠিক। “মোহনবাগান মাঠ ঘুরে দেখেছি। নির্বাচন কোথায় হবে, তা আমরা শীঘ্রই জানিয়ে দেব।” বলেন অসীম রায়।

যখন মনোনয়ন পত্র পরীক্ষা নিয়ে প্রার্থীরা বিচারপতিদের সঙ্গে বসে কথা বলছেন ততক্ষণে শুরু হয়ে গিয়েছে বউবাজারে টুটু শিবিরের সভা। সেই সভায় ব্যারেটো যথারীতি হাজির হয়ে সবুজ-মেরুন সমর্থকদের পুরো চমকে দেন। সংক্ষিপ্ত ভাষণে ব্যারেটো বলেন, “মোহনবাগানে খেলেই আজ আমি প্রতিষ্ঠিত। যাদের অনুপ্রেরণায় মোহনবাগানে আমার নাম হয়েছে তাদের মধ্যে দু’জনকে সামনে টেনে আনব। একজন দেবাশিস দত্ত। আর একজন  সৃঞ্জয় বোস। দেবাশিসের সঙ্গে আমার পারিবারিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। কোনও সন্দেহ নেই, এই দু’জন প্রচন্ড দক্ষ কর্মকর্তা। এদের হাত ধরেই মোহনবাগান এগিয়ে যেতে পারবে।” ব্যারেটো যখন কথাগুলো বলছেন তখন বউবাজারের সভা উপচে পড়েছে সভ্য—সমর্থকদের জোয়ারে। পরে সভায় বক্তব্য রাখেন সৃঞ্জয় বোস, দেবাশিস দত্তরা। প্রত্যকেই কথা প্রসঙ্গে বুঝিয়ে দিয়ে গিয়েছেন, অঞ্জন এন্ড কোং ক্লাব নির্বাচনকে সামনে রেখে বেশ কিছু ক্ষেত্রে চমক দেখাতে চাইছেন। সৃঞ্জয় বোস তো বলেই দিলেন, “স্টিমকাস্ট সংস্থাকে নিয়ে এসে স্রেফ চমক দেখাতে চেয়েছিলেন অঞ্জন মিত্র। আসলে সবকিছু ছিল লোক দেখানো।”

[ ২৮ বছর পর মোহনবাগান নির্বাচনে টুটু বোস, লড়ছেন অঞ্জনের বিরুদ্ধে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে