BREAKING NEWS

২১ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ৪ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

ফুটবলারদের বকেয়া না মেটানোর জের, বড়সড় জরিমানার মুখে মোহনবাগান

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 16, 2020 8:37 pm|    Updated: February 16, 2020 8:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফুটবলারদের বকেয়া না মেটানোর জেরে এবার রীতিমতো বিপাকে মোহনবাগান (Mohun Bagan)। সবুজ-মেরুন শিবিরকে মোটা অঙ্কের জরিমানার পাশাপাশি এক মাসের মধ্যে চার ফুটবলার এবং প্রাক্তন কোচ খালিদ জামিলের পাওনা মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Mohun-Bagan
মোহনবাগানের বার্ষিক সাধারণ সভা

এআইএফএফের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির এক বৈঠকে মোহনবাগানকে শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফেডারেশনের (All India Football Federation) তরফে জানানো হয়েছে, জরিমানা না মেটানোর শাস্তিস্বরূপ ১৫ দিনের মধ্যে ফেডারেশনকে ৩ লক্ষ টাকা দিতে হবে সবুজ-মেরুনকে। সেই সঙ্গে চার প্রাক্তন ফুটবলার ও কোচ খালিদ জামিলের বকেয়া মেটাতে হবে ১ মাসের মধ্যে। প্রাক্তন ফুটবলারদের মধ্যে কেরালা ব্লাস্টার্সের ডিফেন্ডার রাজু গাইকোয়াড়ের প্রাপ্য ১১ লক্ষ টাকা। কেরালার আরেক ফুটবলার ডারেন কালডেইরার প্রাপ্য প্রায় ৮ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা। বর্তমানে ইস্টবেঙ্গলে খেলা অভিষেক আম্বেকর পাবেন পাঁচ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। একই পরিমাণ বেতন বকেয়া আছে প্রাক্তন গোলরক্ষক রিকার্ডো কার্ডোজেরও। এক মাসের মধ্যে এই চার ফুটবলারের বকেয়া না মেটালে ক্লাবকে ফুটবলার সই করানো থেকে নির্বাসিত করা হবে। সেক্ষেত্রে অন্তত ২টি ট্রান্সফার উইনডোতে কোনও ফুটবলার সই করাতে পারবে না সবুজ-মেরুন শিবির।

[আরও পড়ুন: মোহনবাগানের বার্ষিক সভায় এটিকের সঙ্গে হাত মেলানোকে সমর্থন সদস্যদের]

খালিদ জামিলকে অবশ্য ক্লাবের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, দ্রুত তাঁর বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে। তাঁকে ইতিমধ্যেই ৪ লক্ষ টাকা মিটিয়ে দিয়েছে সবুজ-মেরুন শিবির। আরও ৮ লক্ষ ২০ হাজার টাকা বকেয়া আছে তাঁর। বাকি চার ফুটবলার এই ধরনের কোনও আশ্বাসও পাননি। উল্লেখ্য, শনিবারই বার্ষিক সাধারণ সভায় গত মরশুমের আয়-ব্যয়ের হিসেব পেশ করেছেন অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত। সেই হিসেব বলছে গত বছর প্রায় এক কোটি টাকারও বেশি ক্ষতি হয়েছে ক্লাবের। এই বিপুল ক্ষতির উপর এবার আরও প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা মেটানোর চাপ পড়ল সবুজ-মেরুনের উপর।

যদিও, এআইএফএফের সিদ্ধান্তের পরই মোহনবাগানের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এআইএফএফের নির্দেশমতো ফুটবলারদের সব বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে।মোহনবাগান ফুটবলারদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ কখনও পিছপা হয়নি। আগামী দিনেও হয়নি। সেই সঙ্গে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আই লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে ফুটবলারদের মনযোগ নষ্ট হয়, এমনটা ক্লাব কোনওভাবেই চায় না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement