১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হচ্ছে, কিন্তু চোরাশিকার রোখা যাচ্ছে না। উত্তরপ্রদেশে চোরাশিকারের অভিযোগে আন্তর্জাতিক গলফ খেলোয়াড় জ্যোতি রনধওয়াকে গ্রেপ্তার করল বনদপ্তরের পুলিশবাহিনী। গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাঁর এক বন্ধুকেও। ধৃতদের কাছে একটি রাইফেল পাওয়া গিয়েছে। 

শুধু আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গলফ খেলোয়াড়ই নন, অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিংয়ের প্রাক্তন স্বামী জ্যোতি রনধওয়া। ২০০৪ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত গলফে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। খেলেছেন এশিয়া ও ইউরোপের বিভিন্ন টুর্নামেন্টেও।  উত্তরপ্রদেশের বনদপ্তরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন,  দুধওয়া ব্যাঘ্র প্রকল্পের জঙ্গলে চোরাশিকারের চেষ্টা করেছেন জ্যোতি রনধওয়া ও তাঁর বন্ধু মহেশ বিরাজদার। এসইউভি গাড়িতে চেপে জঙ্গলে ঢুকেছিলেন তাঁরা। দু’জনকেই গ্রেপ্তার করেছে বনদপ্তরের পুলিশবাহিনী। আটক করা হয়েছে গাড়িটিকেও। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি রাইফেলও। 

সত্যি কথা বলতে, গোটা দেশজুড়েই চোরাশিকারিদের দৌরাত্ম্য বাড়ছে। সম্প্রতি কাজিরাঙ্গায় ১৩টি ব্র্যাঘ্র প্রকল্পে চোরাশিকার রুখতে ড্রোনের সাহায্যে নজরদারি চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বনদপ্তর। যদিও বনকর্তাদেরই বক্তব্য, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করেও চোরাশিকারিদের আটকানো যাচ্ছে না। বছর দশেক আগে রাজস্থানে শুটিং করতে বিলুপ্তপ্রায় কৃষ্ণসার হরিণ শিকারের অভিযোগ ওঠেছিল সলমন খানের বিরুদ্ধে। বস্তুত, মঙ্গলবার এ রাজ্যের গরুমারা অভয়ারণ্যে ঢুকে একটি গন্ডারকে মেরে খড়গ নিয়ে পালিয়ে যায় চোরাশিকারিরা।  

 

[ সোনাজয়ী সিন্ধুকে দশ লক্ষ টাকা পুরস্কার ব্যাডমিন্টন সংস্থার]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং