১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৫  রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮ 

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও দীপাবলি ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৫  রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টেনিস আইকনের সেই রূদ্রমূর্তি কেউ হয়তো আগে দেখেননি। হেরে গিয়ে নজিরবিহীনভাবে চেয়ার আম্পায়ারের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়। আর তার জেরেই এখন রীতিমতো বিপাকে টেনিস স্টার। ইউএস ওপেনের ফাইনালের রাতের জন্য তিনটি পৃথক অপরাধের জন্য তিনটি পৃথক অঙ্কের জরিমানা ধার্য্য করা হয়েছে।

[যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে হার, মেজাজ হারিয়ে চেয়ার আম্পায়ারকে ‘চোর’ বললেন সেরেনা]

সেরেনার বিরুদ্ধে তিনটে নিয়মভঙ্গের অভিযোগ এনেছে মার্কিন টেনিস নিয়ামক সংস্থা। সেরেনার বিরুদ্ধে ওঠা প্রথম অপরাধ, খেলা চলাকালীন কোর্ট থেকেই কোচের পরামর্শ নেওয়া। এই অপরাধের জন্য জরিমানা বাবদ সেরেনাকে দিতে হবে ৪ হাজার মার্কিন ডলার। ২৩ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ীর দ্বিতীয় অপরাধ, ক্ষোভের বশে কোর্টের মধ্যেই ব়্যাকেট ছুঁড়ে ফেলা। এই অপরাধের জন্য সেরেনার জরিমানা ধার্য্য করা হয়েছে ৩ হাজার ডলার। এবং, সেরেনার সবচেয়ে বড় অপরাধ হিসেবে গ্রাহ্য হয়েছে ম্যাচের চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস ব়্যামোসকে ‘মিথ্যেবাদী’ এবং ‘চোর’ বলা। এই অপরাধে সেরেনার জরিমানা হয়েছে ১০ হাজার মার্কিন ডলার। অর্থাৎ, তিনটি পৃথক অপরাধের জন্য সেরেনার মোট জরিমানা ধার্য্য করা হয়েছে মোট ১৭ হাজার মার্কিন ডলার। মার্কিন তারকাকে জরিমানা করেছে মার্কিন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন।

[এশিয়ান গেমসে ব্রোঞ্জজয়ী ভারতীয় স্কোয়াশ দলের এই প্রতিনিধিকে চেনেন?]

যদিও, এত বিতর্কের পরেও সেরেনার পাশেই রয়েছে ওয়ার্ল্ড ওমেন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন। ওমেন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন (WTA)-এর তরফে সংস্থার সিইও স্টিভ সিমন সেরেনার পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ইউএস ওপেনের ফাইনালে যা হয়েছে অপ্রত্যাশিত। আমার ব্যক্তিগত মত, চেয়ার আম্পায়ারের হয়তো সেরেনাকে অতটা চাপ দেওয়া উচিত হয়নি। বিশেষ করে গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালে অনেকেই তেঁতে থাকেন, সেসময় রেফারির ওই সিদ্ধান্তটা ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিল।” তবে, সেরেনার পাশে দাঁড়ালেও ওসাকাকেও খাটো করে দেখাননি সিমন। তিনি বলেন, যোগ্য খেলোয়াড় হিসেবেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ওসাকা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং