৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo দিল্লি ২০২০ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

শুভময় মণ্ডল ও মণিশংকর চৌধুরি: ডার্বির পরদিনই বড়সড় রদবদল মোহনবাগানের পরিচালন সমিতিতে। সবুজ-মেরুনের পরবর্তী সভাপতি হচ্ছেন টুটুবাবু। এতদিন ক্লাবের সচিব ছিলেন টুটু বোস। প্রয়াত সভাপতি গীতানাথ গঙ্গোপাধ্যায়ের স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। তাঁর ছেড়ে যাওয়া সচিব পদে এলেন সৃঞ্জয় বোস (Srinjoy Bose)।

Tutu-Srinjoy
গীতানাথ গঙ্গোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর থেকেই মোহনবাগান ক্লাবের সভাপতি পদটি ফাঁকা পড়েছিল। সেই শূন্যস্থান পূরণের জন্যই পরিচালন সমিতিতে রদবদলের প্রয়োজন পড়ে। ক্লাবের শীর্ষকর্তারা বেশ কিছুদিন ধরেই প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সোমবার অর্থাৎ ডার্বির পরের দিনই পরিচালন সমিতির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক ডাকা হয়। সেই বৈঠকেই স্থির হয় ক্লাবের পরবর্তী সভাপতি হবেন টুটু বোস। এবং তাঁর জায়গায় সচিব পদে বসবেন সৃঞ্জয়বাবু। এদিকে, সৃঞ্জয় বোস সচিব পদে উন্নীত হওয়ায়, সহ-সচিব পদটিও ফাঁকা হয়ে যায়। সেই পদে বসতে চলেছেন প্রাক্তন ফুটবলার সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায়। সত্যজিতবাবু এতদিন কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব সামলে আসছিলেন। তাঁর পরিবর্তে সবুজ মেরুনের নতুন কোষাধ্যক্ষ হবেন উত্তম সাহা। উত্তমবাবু ছিলেন মোহনবাগানের মাঠ সচিব। এই দায়িত্বটি এবার দেওয়া হল বর্তমান হকি সচিব মহেশ টেকরিয়ালকে। মহেশবাবুর জায়গায় হকি সচিব হচ্ছেন সঞ্জীবন বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: কী হবে মোহনবাগানের নতুন নাম এবং জার্সির রং? মুখ খুললেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কা]

এছাড়াও মোহনবাগানের পরিচালন সমিতি এদিন আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ক্লাবের পরিচালন কমিটিতে স্থায়ী সদস্য হিসেবে জায়গা পেলেন প্রয়াত অঞ্জন মিত্রর মেয়ে সোহিনী মিত্র। এদিনের বৈঠক শেষে এই সিদ্ধান্তগুলি ঘোষণা করেছেন ক্লাবের অর্থ সচিব দেবাশিস দত্ত। অন্যদিকে, মোহনবাগানের সচিবের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে বসে আপ্লুত সৃ্ঞ্জয় বোস। তিনি বলছেন, “এটা একটা স্বপ্নের দিন। ১৯৮৭ সাল থেকে বাবা মোহনবাগান ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত। ৮-৯ বছর থেকে ক্লাবে আসা যাওয়া শুরু করেছি। তখন থেকেই ক্লাবের সঙ্গে জড়িত। এটা আমার জন্য একটি স্বপ্নের মুহূর্ত। আমার বাবা ক্লাবের জন্য অনেক কিছু করেছেন। আমিও আশা করি ক্লাবের জন্য ভাল কিছু করতে পারব। বাবার স্বপ্ন সার্থক করতে পারব।” এদিন সৃঞ্জয়বাবু আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি জানান, মোহনবাগান একটা পরিবারের মতো। শুরু থেকেই এখানে পরিবারের সদস্যদের মতোই কাজ করেন সকলে। তাই, প্রাক্তন সচিব টুটুবাবুর ছেড়ে যাওয়া চেয়ারে তিনি বসবেন না। আগে যেখানে বসতেন, সেই চেয়ারে বসেই সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং