৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাজার জল্পনায় জল ঢেলে অন্যান্য প্রতিযোগীদের পিছনে ফেলে আরও একবার টিম ইন্ডিয়ার কোচের পদে আসীন রবি শাস্ত্রী। সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেওয়ার পরই তাঁর কোচিং নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তারপরই ঠিক হয়, ভারতীয় দলের জন্য বেছে নেওয়া হবে নয়া কোচ। যদিও আবেদনকারীদের তালিকায় ছিলেন শাস্ত্রীও। শুক্রবার মুম্বইয়ে ইন্টারভিউর পর শেষমেশ শাস্ত্রীকেই কোচ হিসেবে বেছে নেয় কপিল দেবের নেতৃত্বাধীন উপদেষ্টা কমিটি। কিন্তু ঠিক কী দেখে তাঁকে আরও একবার কোহলিদের কোচ করা হল? সামনে এল সেই তথ্য।

[আরও পড়ুন: জল্পনার অবসান, ঘোষিত টিম ইন্ডিয়ার নয়া কোচ]

কপিল দেবদের স্কোরকার্ডে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে শীর্ষে শাস্ত্রী। তাঁর পরই দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছেন কোচের পদে আবেদনকারী দুই তারকা মাইস হেসন ও টম মুডি। উপদেষ্টা কমিটির তিন সদস্য কপিল দেব, শান্থা রঙ্গস্বামী এবং অংশুমান গায়কোয়াড় জানান, মূলত পাঁচটি বিষয় দেখেই তাঁরা কোহলিদের কোচ বেছে নিয়েছেন। কোচিংয়ের দর্শন, কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা, কোচিংয়ে সাফল্য, জনসংযোগ এবং আধুনিক কোচিং স্টাইল নিয়ে সার্বিক জ্ঞান। তিরাশির বিশ্বজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব বলেন, “কোচিং দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, খেলার জ্ঞান- এগুলোই ছিল মূল বিষয়। আমরা পয়েন্টের মাধ্যমে বাছাই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। একশোর মধ্যে কে কত নম্বর পায়, সেটাই ছিল দেখার। বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে বলতেই হবে।” তবে তাঁরা যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে কোনওভাবেই ক্যাপ্টেন কোহলির সঙ্গে পরামর্শ করেননি, তাও স্পষ্ট করে দেন কপিল দেব। অর্থাৎ কোহলির সঙ্গে শাস্ত্রীর সুসম্পর্কের কথা মাথায় রেখেই যে কোচ নির্বাচন হয়েছে, এমনটা ধারণা ভিত্তিহীন বলেই বুঝিয়ে দিতে চেয়েছেন তিনি।

কোচ নির্বাচনের প্রক্রিয়া শেষ হলেও এখনও অনিশ্চিত দলের সাপোর্ট স্টাফদের ভবিষ্যৎ। উপদেষ্টা কমিটি চায় সাপোর্ট স্টাফদের বাছাইয়ের দায়িত্ব যেন তাদেরই দেওয়া হয়। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসনিক কমিটি জানিয়েছে, এমএসকে প্রসাদের জাতীয় নির্বাচন কমিটিই সাপোর্ট স্টাফদের বেছে নেবে। বর্তমানে দলের ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গার, বোলিং কোচ ভরত অরুণ এবং আর শ্রীধর ফিল্ডিং কোচের দায়িত্বে রয়েছেন। তাঁদের ভবিষ্যৎ এখনও বিশ বাঁও জলে।

[আরও পড়ুন: আত্মঘাতী প্রাক্তন ভারতীয় ব্যাটসম্যান চন্দ্রশেখর, শোকস্তব্ধ ক্রিকেট মহল]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং