BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ফের ভারতীয় ভূখণ্ডে থাবা ড্রাগনের, লাদাখে ঘাঁটি গাড়ল লালফৌজ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: August 14, 2018 2:43 pm|    Updated: August 14, 2018 2:43 pm

Chinese troops enter Indian territory in Ladakh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ভারতে অনুপ্রবেশ চিনা সেনার। লাদাখ সীমান্তে ভারতীয় ভূমিতে প্রবেশ করল চিনের ‘পিপলস লিবারেশন আর্মি’ বা পিএলএ-র জওয়ানরা। জানা গিয়েছে, চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রায় ৪০০ মিটার ঢুকে পড়েছে। সেখানে তারা তাঁবুও ফেলেছে বলে সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর।

পূর্ব লাদাখের ডেমচোক এলাকায় ঘাঁটি গেড়েছে চিনা সৈন্য। মোট পাঁচটি তাঁবু ফেলেছে তারা। ঘটনাটি ভারতীয় সেনার অগোচরে নেই। বিষয়টি সম্পর্কে জানার পর ভারতীয় সেনার তরফে ব্রিগেডিয়ার লেভেলে দুই দেশের মধ্যে কথাবার্তা হয়। তারপর চিন দু’টি তাঁবু গুটিয়ে নেয়। তবে সব তাঁবু এখনও তুলে নেয়নি চিন।

চিনে তৈরি হচ্ছে ভারতীয় মুদ্রা? জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন ]

ঘটনাটি ঘটে চলতি বছরের জুলাই মাসে। তখনই ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ করে চিনা সেনা। ভারতীয় সেনার তরফে তাদের সতর্ক করা হয়। জানানো হয়, তারা আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রম করে ফেলেছে। ভারতীয় সেনার তরফ তাদের পতাকাও দেখানো হয়। নিজেদের দেশে ফিরে যেতে বলা হয়। কিন্তু তাতেও কোনও হেলদোল নেই চিনা সৈনিকদের। তাঁবু গুটিয়ে নেওয়ার কোনও ইচ্ছা তাদের মধ্যে দেখা যায়নি। এরপরই ব্রিগেডিয়ার লেভেলে আলোচনার কথা ওঠে।

সমঝোতার ইঙ্গিত! স্বাধীনতা দিবসে ৩০ ভারতীয় বন্দিকে মুক্তি দিল পাকিস্তান ]

তাতে কিছুটা হলেও সমাধান মেলে। কিন্তু চিন এখনও পাততাড়ি গুটিয়ে নেয়নি। এর ফলে ফের ডোকালামের মতো পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ২০১৭ সালের জুলাই আগস্ট মাসে রাস্তা তৈরির নাম করে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছিল চিনা সৈন্যরা। বহুবার তাদের ফিরে যাওয়ার কথা বলা হলেও তারা ফিরে যায়নি। তাদের দেশে ফেরাতে ও ভারতে অনুপ্রবেশ রুখতে এই সময় প্রায় ৭২ দিন তাদের উপর নজরদারি চালায় ভারতীয় সেনা। যুদ্ধ পরিস্থিতিও তৈরি হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যুদ্ধ লাগেনি। আলোচনার টেবিলেই মিটে যায় সমস্যা। সেনা সরিয়ে নেয় চিন। ফলে ভারতও নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে