BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শৌচালয় পরিষ্কারে প্রয়োজন অমুসলিম কর্মী! পাক সেনার বিজ্ঞাপন ঘিরে বিতর্ক

Published by: Tanujit Das |    Posted: September 3, 2018 6:13 pm|    Updated: September 3, 2018 6:13 pm

Pak army offers menial jobs to non-Muslims

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেনার শূণ্যপদে নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিতর্ক জড়াল পাক রেঞ্জার্স৷ পাকিস্তানের একটি বিখ্যাত সংবাদপত্রে দেওয়া হয়েছে বিজ্ঞাপনটি৷ যেখানে বলা হয়েছে, সিন্ধ প্রদেশের পাক রেঞ্জার্সদের শৌচালয় পরিষ্কারের জন্য কর্মী প্রয়োজন৷ এই পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল৷ কিন্তু বিতর্ক উসকে দিয়েছে এই কর্মখালি আবেদনের একটি বিভাগ৷ সেখানে বলা হয়েছে, এই কাজের জন্য আবেদন করতে পারবেন কেবল মাত্র অমুসলিম যুবকরা৷

 

[রয়টার্সের ২ সাংবাদিককে ৭ বছরের জেলের সাজা দিল মায়ানমার]

এই বিজ্ঞাপনটি গত ২৬ আগস্ট প্রকাশিত হয়৷ এরপর থেকেই ঝড়ের গতিতে তা ছড়িয়ে পড়তে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ নিন্দায় মুখর হয়েছেন বিশিষ্ট মহল থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ৷ বিযয়টিকে দেশের সংখ্যালঘুদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ বলে সরব হয়েছেন মানবাধিকার কর্মীরাও৷ প্রতিবাদ উঠেছে পাকিস্তানের সংখ্যালঘু হিন্দুদের মধ্য থেকেও৷ অনেকেই কটাক্ষের সুরে বলছেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিমরা দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন এবং সংখ্যালঘুরা দেশ পরিষ্কার করবেন৷ কেবল সংবাদপত্রেই এই বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়নি৷ পাশাপাশি, একই বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে সিন্ধ প্রদেশের পাক রেঞ্জার্সদের ওয়েব সাইটেও৷

[OMG! এই কারণে ধীরে ধীরে জলের তলায় যাচ্ছে ব্যাংকক!]

বিষয়টিকে কেন্দ্র করে আঙুল উঠেছে সদ্য মসনদে বসা পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে৷ ইরমানের আমলে পাক সেনার ‘নয়া রূপ’ বলে ঘটনাকে কটাক্ষ করেছেন অনেকে৷ বিষয়টিকে একটি বৃহদাংশের মানুষ নিন্দনীয় বললেও, অনেকে আবারও ছবিটির সারবত্তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন৷ পাক রেঞ্জার্সদের ছোট করতে জাল ছবি ছড়ান হচ্ছে বলে তাঁদের দাবি৷ যদিও এই দাবির সপক্ষে কোনও যথাযথ প্রমাণ পেশ করতে পারেননি তাঁরা৷ কারণ, সিন্ধ প্রদেশের পাক রেঞ্জার্সদের ওয়েব সাইটে জ্বলজ্বল করতে থাকে বিজ্ঞাপনটি৷ উল্লেখ্য, এটা প্রথম নয়৷ দীর্ঘদিন ধরেই পাকিস্তানে বৈষম্য ও অত্যাচারের মুখোমুখি হতে হচ্ছে সংখ্যালঘু হিন্দুদের৷ কেড়ে নেওয়া হচ্ছে তাঁদের ভিটেমাটি৷ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে হিন্দুদের স্কুল৷ অত্যাচার চলছে নিরীহ নাগরিকদের উপরে৷ 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে