BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কনজারভেটিভ দলের নেতৃত্বের লড়াইয়ে পাক বংশোদ্ভূত সাজিদ জাভিদ

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 30, 2019 5:12 pm|    Updated: May 30, 2019 5:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্রিটেনের ইতিহাসে বেনজির ঘটনা৷ সমস্ত সমীকরণ মিলে গেলে কনজারভেটিভ পার্টির শীর্ষ পদে বসতে পারেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ। তিনিই প্রথম এশীয় যিনি এই লড়াইয়ে নামলেন। সম্ভবত ৭ জুন দলের শীর্ষ পদ থেকে ইস্তফা দেবেন টেরেসা মে। টোরি দলের শীর্ষ পদে বসলে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক হিসেবে তিনিই প্রথম এই কৃতিত্বের অধিকারি হবেন৷

[আরও পড়ুন: জয়ের ‘পুরস্কার’, মন্ত্রিত্বের পথে দিলীপ-শান্তনু-কুনার হেমব্রম]

কয়েকদিন আগেই ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ব্রেক্সিট চুক্তি পাশ না করাতে পেরে প্রধানমন্ত্রী পদ তথা দলের শীর্ষ পদ ত্যাগের কথা ঘোষণা করেন টেরেসা মে। তারপর থেকেই টোরি দলের শীর্ষ পদে কে বসবেন তা নিয়ে শুরু হয় জল্পনা৷ এখনও পর্যন্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ-সহ আটজন ওই পদে বসার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পরেই গণতন্ত্র ফেরানোর ডাক দিয়ে লড়াইয়ে নেমেছেন জাভিদ। শীর্ষ পদের লড়াইয়ে থাকার কথা জানিয়ে তিনি লিখেছেন, “আমাদের সবার আগে ব্রেক্সিট সফল করতে হবে। এই কাজ এমনভাবে করতে হবে যাতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ এর সুবিধা পেতে পারে। আমাদের অর্থনীতি ও সমাজকে শক্তিশালী করতে হবে। প্রত্যেক সম্প্রদায়ের অভিযোগ শুনে উচিত ব্যবস্থা নিতে হবে। দেশের হয়ে আমার সেরাটা দেওয়ার জন্যই আমি রাজনীতিতে প্রবেশ করেছি।” সূত্রের খবর, তাঁর প্রচারের মূল কথাই হবে। দেশকে ঐক্যবদ্ধ করে ব্রেক্সিট কার্যকর হোক।

এদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, ফের মসনদ দখলে রাখা কনজারভেটিভ পার্টির পক্ষে সহজ হবে না৷ বিশেষ করে ব্রেক্সিট নিয়ে দলীয় অন্তর্দ্বন্দ্ব ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন নির্বাচনে নাইজেল ফারাজের ব্রেক্সিট পার্টির উত্থানে বেশ কিছুটা চাপে রয়েছে টোরিরা৷ তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে নতুন কাউকে দলের মুখ করার কথা ভাবা হচ্ছে৷ সেক্ষেত্রে সাজিদ জাভিদ ব্রিটিশ রাজনীতিতে এক ব্যতিক্রমী মুখ হয়ে উঠতে পারেন৷ ২০১০ সালে প্রথমবার সংসদে প্রবেশ করেন সাজিদ প্রথমে জুনিয়র মন্ত্রী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করে সাংস্কৃতিক মন্ত্রী, বাণিজ্য মন্ত্রী হয়ে গতবছর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দায়িত্ব পান তিনি। উইন্ডরাশ কেলেঙ্কারির ঘটনায় আম্বের রুড পদত্যাগ করায় সাজিদ ওই দায়িত্ব পান।

[আরও পড়ুন: ইসলামের ‘অবমাননা’, পাকিস্তানে জ্বলল হিন্দুদের ঘর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement