BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সন্ত্রাসের আবার ভাল-মন্দ কী? দাভোসে সওয়াল মোদির 

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 23, 2018 12:21 pm|    Updated: January 23, 2018 12:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ত্রাসবাদ নিয়ে দ্বিচারিতা বন্ধ হোক। বিশ্বমঞ্চে দাঁড়িয়ে বার্তা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। সুইজারল্যান্ডের দাভোসে বিশ্বের সামনে ফের সন্ত্রাসবাদের ভয়াবহতা তুলে ধরেন তিনি।

নাম না করেও বিশ্ব আঙিনায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানান প্রধানমন্ত্রী। তাঁর বক্তব্য, “সন্ত্রাসবাদ ভয়াবহ। তার থেকেও ভয়ঙ্কর হচ্ছে উগ্রপন্থা নিয়ে দ্বিচারিতা। সন্ত্রাসের আবার ভাল-মন্দ কী। এর কোনও সংজ্ঞা হয় না।” বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করছেন, পরোক্ষে পাকিস্তানকেই বিধঁলেন মোদি। জঙ্গিদের প্রশ্রয় দিলে ভারত যে তা মেনে নেবে না। তা স্পষ্ট করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক মহলের প্রতিক্রিয়াও যে খতিয়ে দেখছে দিল্লি কৌশলে তা জানিয়ে দিলেন মোদি।

আন্তর্জাতিক মঞ্চে এদিন ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র সপক্ষে জোরাল যুক্তি তুলে ধরেন মোদি। এই সন্মেলনে ভারতের ক্যাচলাইন ‘ইনভেস্ট ইন্ডিয়া’। এই স্বপ্ন সফলে ভারতে লগ্নির বিষয়ে উৎসাহ দিতে মোদি বৈঠক করেন একাধিক শিল্পকর্তার সঙ্গে। যেখানে ছিলেন বিশ্বের ১৮টি দেশের ৪০ জন সিইও। যাঁর মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংস্থা হল এয়ারবাস, হিটাচি, ডবলুইএফ। তাবড় সংস্থাগুলির বাণিজ্যিক প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে মোদি স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন কেন তাদের গন্তব্য হওয়া উচিত ভারত। এর ব্যাখ্যায় প্রধানমন্ত্রী জানান ভারতের বৃদ্ধির গতি ধারাবাহিক, এ দেশের বাজার বিশাল, এখানে শিল্পসম্ভাবনা অত্যন্ত জোরাল।

দাভোসে জিএসটি নিয়েও বিরোধীদের সমালোচনার জবাব দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান, জিএসটি ও প্রযুক্তির সাহায্যে কর কাঠামোকে সরল করে তোলা হয়েছে। ফলে লাভান্বিত হয়েছেন ব্যবসায়ীরা। ১৯৯৭ সালে ভারতের জিডিপি ছিল ৪০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তার তুলনায় এবার দেশের জিডিপি প্রায় ছয় গুণ বেড়েছে। দেশ পালটাচ্ছে। সরকারের নীতিগুলিকে সমর্থন জানিয়েছে জনতা।

আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের ভূয়সী প্রশংসা করেন শিল্পপতি মহল। ভারতী এন্টারপ্রাইজার কর্তা রাজন মিত্তল বলেন, একজন প্রকৃত স্টেটসম্যানের মতো মত রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী। শুধু দেশের কথায় নয় তাঁর ভাষণে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুও উঠে এসেছে। সব মিলিয়ে সন্ত্রাসবাদ থেকে শুরু করে শিল্প প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই ভারতের গুরুত্ব ও অবস্থান আন্তর্জাতিক মহলের সামনে স্পষ্ট করে তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী বলেই মত কূটনৈতিক মহলের।

[বিনিয়োগ করুন ভারতে, বিশ্বমঞ্চে শিল্পপতিদের আহ্বান মোদির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement