Advertisement
Advertisement
Kaustav Bagchi

‘বাংলাকে বাচান’, রক্ত দিয়ে ভুল বানানে মোদিকে চিঠি লিখলেন কৌস্তভ!

ভুল বানানে লেখা সেই চিঠি কৌস্তভ নিজের সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেই শুরু হাসাহাসি।

Kaustav Bagchi handed over letter written with blood to PM Narendra Modi appealing to save Bengal
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:March 9, 2024 9:24 pm
  • Updated:March 9, 2024 9:35 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সপ্তাহ দুয়েক হয়েছে দীর্ঘদিনের দল ছেড়েছেন। কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দলে যোগ দিয়েছেন। আর তার পরই সেই দলের সুপ্রিম নেতা ও দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Narendra Modi) মধ্যেই পিতৃদর্শন করলেন! শুধু কি তাই? তাঁর বঙ্গ সফরে সাক্ষাৎ করে বাংলাকে বাঁচানোর আর্জি জানালেন কংগ্রেসত্যাগী যুবনেতা কৌস্তভ বাগচী (Kaustav Bagchi)। নিজের রক্ত (Blood) দিয়ে বাংলায় মোদিকে চিঠি লিখলেন তিনি। যদিও তাতে বিস্তর বানান ভুল! আর তা নিয়ে বিরোধী রাজনৈতিক মহলে রীতিমতো হাসাহাসি শুরু হয়েছে।

শনিবার শিলিগুড়িতে (Siliguri) সভা করতে এসেছিলেন নরেন্দ্র মোদি। বিজেপিতে যোগদানের পর মোদি যেখানেই সভা করছেন, সেখানেই দেখা যাচ্ছে কৌস্তভকে। শনিবার শিলিগুড়ির মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একটু আলাাদা কথা বলার অবসর পেয়েছিলেন। আর সেখানেই কৌস্তভ তাঁর হাতে তুলে দিয়েছেন রক্তে লেখা চিঠি! তাতে লেখা – ‘মোদীজী বাংলাকে বাচান চোরেদের তারান’। এই চিঠি বনিজেই সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া তরুণ নেতা। তার পর লিখেছেন, ”বাংলার স্বার্থে ওই মঞ্চে তাঁর হাতে আমি নিজের রক্ত দিয়ে লেখা চিঠিটি তুলে দিই। তিনি তা গ্রহণ করেছেন কিন্তু আমাকে বকাবকি করেছেন রক্ত দিয়ে চিঠি লিখেছি বলে। ঠিক যেমনটা আমার বাবা করেছেন। আর এতেই তিনি সবার থেকে আলাদা।”

[আরও পডুন: পাকিস্তানের নয়া প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি, নওয়াজের দলকে সমর্থনের ‘পুরস্কার’?]

লোকসভা ভোটের (2024 Lok Sabha Polls) আগে কৌস্তভ বাগচীর এই দলবদল রাজনৈতিক মহলে যথেষ্ট আলোচিত বিষয় হয়ে উঠেছে। তৃণমূল, বিজেপি বিরোধী এতদিনের তরুণ নেতা কেন আচমকা এমন মত বদলে গেরুয়া শিবিরে গেলেন, তা নিয়ে কাটাছেঁড়ার অন্ত নেই। কিন্তু কৌস্তভ এ বিষয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ। সমালোচকদের জবাব দেওয়ারও প্রয়োজন মনে করেননি। তার চেয়েও বড় কথা, বিজেপিতে যোগ দিয়ে তাঁর এধরনের আচরণ সকলেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। তবে কি রক্তে লেখা চিঠিতে তিনি নিজের রাজনৈতিক ‘ভালোবাসা’র প্রমাণ দিতে চাইলেন? তাঁর লক্ষ্য কি লোকসভা নির্বাচনে পদ্মপ্রার্থী হওয়া? এসব প্রশ্ন এড়ানো যাচ্ছে না।

[আরও পড়ুন: চিনের চিন্তা বাড়িয়ে সেলা টানেল উদ্বোধন মোদির, অরুণাচলে ‘মাস্টারস্ট্রোক’ ভারতের]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ