৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সুকুমার সরকার, ঢাকা: পরীক্ষা দিচ্ছেন ছাত্রী। আর তার শিশু সন্তান কোলে নিয়ে বসে রয়েছেন শিক্ষক। ইতিমধ্যেই সেই ছবি ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। ছবি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই প্রশংসায় ভাসছেন বাংলাদেশের শিক্ষক আহমেদ মাহবুবুল আলম। বাড়িতে কেউ না থাকায় সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন ঢাকার আশুলিয়ায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী। বাচ্চাকে কোলে নিয়েই পরীক্ষায় বসেছিলেন তিনি। এই দৃশ্য দেখে ছাত্রীর সুবিধার্থে এগিয়ে যান হলের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক আহমেদ মাহবুবুল আলম। পরীক্ষার্থীর শিশু সন্তানকে নিজের কোলে তুলে নেন তিনি। মুহূর্তে সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়ে ঘটনাটি।

পরীক্ষার হলে ছাত্রীর সন্তানকে কোলে রাখায় শিক্ষক মাহবুবুল আলমের প্রশংসা পঞ্চমুখ নেটিজেনরা। তাঁর এই কর্তব্যবোধের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন সকলে। কেউ কেউ বলছেন, আহমেদ মাহবুবুল আলমরাই হচ্ছেন প্রকৃত শিক্ষক। এরপরই আহমেদ মাহবুবুল আলম একটি পোস্ট করেন। লেখেন, ‘প্রায় ১৭ বছরের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার জীবনে এই প্রথম আমার একটা অন্য রকমের অভিজ্ঞতা হল। বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া ক্যাম্পাসে স্নাতকস্তরের ‘বিজনেস ইংলিশ’ কোর্সের একটি পরীক্ষা নেওয়ার কথা ছিল। ক্লাসে গিয়ে দেখি এক ছাত্রী তার ছোট্ট সন্তানকে নিয়ে এসেছে, সে মায়ের কোলে ঘুমাচ্ছে। পরীক্ষার দিন সন্তানকে কেন সঙ্গে নিয়ে এসেছে জিজ্ঞেস করতেই মেয়েটি জানায়, বাচ্চাটিকে রেখে আসার মত কেউ তার বাড়িতে ছিল না। একথা শুনে আমার মায়া হল। ওই তরুণী বেশ কনফিডেন্সের সঙ্গেই ঘুমন্ত বাচ্চাকে কোলে নিয়েই পরীক্ষায় বসে গেল। সব কিছু দেখে নিজেই খুদেকে চেয়ে নিলাম। কোনও দ্বিধা প্রকাশ না করেই সন্তানটিকে আমার কোলে দিয়ে দেয় ওই পরীক্ষার্থী। ‘

শিক্ষকের কথায়, পেশার দিক থেকে কাজটা আদৌ ঠিক কি না তা জানা নেই। কিন্তু সেই মুহূর্তে যা মনে হয়েছে তিনি সেটাই করেছেন। পরীক্ষার শেষে খুদের সঙ্গে একটা ছবিও তোলেন ওই শিক্ষক, কারণ এই অনুভূতি তাঁর কাছে একেবারেই নতুন। তবে এই ছবি নতুন নয়, এর আগেও ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে এরকম ছবি উঠে এসেছে। দেখা গিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছেন মা, আর বাইরে সন্তানকে সামলাচ্ছেন পুলিশ কর্মীরা। এরপর বাংলাদেশের এই শিক্ষকের মানবিকতা বোধে আপ্লুত দেশবাসী।

[আরও পড়ুন: মহুয়া মৈত্রর সঙ্গে প্রচারে যাওয়ার অভিযোগ, সরানো হল থানারপাড়ার ওসিকে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং