১৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর গণধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 8, 2020 2:10 pm|    Updated: January 8, 2020 2:10 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার এক অভিযুক্ত। মঙ্গলবার অভিযান চালিয়ে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। এখনও পলাতক বাকিরা।

র‍্যাবের মুখপাত্র লেফট্যানেন্ট কর্নেল সারোয়ার বিন-কাশেম জানিয়েছেন, ধৃত ব্যক্তির ছবি নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে দেখানো হয়েছে। তাকে ধর্ষক বলে শনাক্ত করেছেন ওই ছাত্রী। অভিযুক্তদের বিষয়ে ছাত্রীর দেওয়া বিবরণ এবং ঘটনাস্থলের আশপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে একাধিক ব্যক্তিকে সন্দেহভাজন হিসেবে শনাক্ত করেছেন তদন্তকারীরা। তাদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

এই মামলায় মঙ্গলবার ঢাকার আদালতে চার্জশিট পেশ করা হয়েছে। ২৮ জানুয়ারির মধ্যে এই ঘটনার রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট। পুলিশের মহাপরিদর্শক মহম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি জানান, এই মুহূর্তে পুলিশের অগ্রাধিকারের তালিকায় সবার উপরে রয়েছে ধর্ষণের এই মামলাটি। পুলিশের সব ইউনিট তদন্তের কাজ করছে।

নির্যাতিত ছাত্রী বর্তমানে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন আছেন। এই ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সকাল থেকেই উত্তাল হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস। মঙ্গলবারও ধর্ষকের চরম শাস্তির দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ দেখায় বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন। দোষীদের গ্রেপ্তার ও কড়া শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলেও হুমকি দেয়। ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল ও রাজু ভাস্কর্যে প্রতিবাদী গান-কবিতায় সমাবেশ এবং মোমবাতি মিছিল নিয়ে শহিদ মিনারে অবস্থান করতে দেখা যায় আন্দোলনকারীদের।

উল্লেখ্য, ঢাকার শেওড়ায় বান্ধবীর বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশে রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে উঠেছিলেন নির্যাতিতা। কিন্তু, ভুল করে শেওড়ার আগে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের কাছে বাস থেকে নেমে পড়েন তিনি। আর তারপরই ধর্ষণের শিকার হন। পরে ওই ছাত্রীর মামা জানান, শেওড়া যাওয়ার সময় ভুল করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের কাছে নেমে পড়েছিলেন ওই ছাত্রী। হাসপাতালের পাশেই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

[আরও পড়ুন: ‘উন্নয়নের টাকায় মন্ত্রী বা সাংসদদের পকেট গরম করতে চায় না সরকার’, বলছেন হাসিনার মন্ত্রী]

An Images
An Images
An Images An Images