৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: শাসকদল আওয়ামি লিগের ছাত্র সংগঠন ছাত্র লিগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেত্রী জারিন দিয়া। দলে কোনও পদ না পাওয়ার কারণেই তিনি ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে জানা গিয়েছে। সোমবার রাতে তাঁকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল। তবে মঙ্গলবার দুপুরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাঁকে ওই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে নিজের বাড়িতেই রয়েছেন তিনি।

ছাত্র লিগ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৩ মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে থাকা মধুর ক্যান্টিনে বহিষ্কৃত ও পদ না পাওয়া ছাত্র লিগের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা হয়। এরপরই এই ঘটনার তদন্ত করে ওই সংগঠনের একজনকে স্থায়ীভাবে ও চারজনকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্র লিগ। সাময়িকভাবে বহিষ্কৃতদের মধ্যে ছিল জারিন দিয়াও।

[আরও পড়ুন-জঙ্গিদের মদতের অভিযোগ, ঢাকা-ইসলামাবাদ কূটনৈতিক দ্বন্দ্ব চরমে]

মঙ্গলবার দুপুরে এপ্রসঙ্গে নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন ছাত্র লিগের বিগত কমিটির কর্মসূচি ও পরিকল্পনা-বিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন। বলেন, “গতকাল রাত সাড়ে ৯টা বা ১০টার দিকে আমাদের সঙ্গে জারিনের শেষ কথা হয়। পরে তাঁর মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন। রাতে ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারলাম, তিনি অনেকগুলো ঘুমের ওষুধ খেয়েছেন। এরপরই আমরা তাঁকে খুঁজতে থাকি। কিন্তু, প্রথমে কোথাও তাঁর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে পরে পুলিশের সাহায্যে তাঁর মোবাইল নম্বর ট্র্যাক করে সন্ধান পাওয়া যায়। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করি আমরা।”

[আরও পড়ুন- ছাত্রীকে ধর্ষণের পর খুনের চেষ্টার অভিযোগ, কাঠগড়ায় পুলিশকর্মী]

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে জারিন দিয়ার শারীরিক অবস্থা ভাল ছিল না। কিন্তু, আস্তে আস্তে তার উন্নতি হয়। তাই মঙ্গলবার দুপুর একটার সময় হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। বর্তমানে জ্ঞান ফিরলেও তিনি কথা বলতে পারছেন না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং