×

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৫ ফাল্গুন  ১৪২৫  সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় ফিরেই দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযানে নেমেছে হাসিনা সরকার৷ দেশের যুব সমাজকে মূল স্রোতে ফেরাতে সচেষ্ট প্রশাসন৷ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানালেন, যাঁরা সুস্থভাবে সমাজে ফিরতে চাইবে, তাদের সুযোগ করে দিতে রাজি সরকার।

[‘বিয়ে পাগল’ যুবককে শাস্তি স্ত্রীর, ব্লেড দিয়ে কাটা হল পুরুষাঙ্গ ]

রবিবার সকালে দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শেখ হাসিনা৷ সেখানে তিনি নির্দেশ দেন, বাংলাদেশ জুড়ে মাদকবিরোধী অভিযান আরও দৃঢ় করতে হবে৷ কোন পথে দেশে মাদক ঢুকছে, কারা ব্যবসা করছে এবং কারা সেই মাদক কিনছে – সব কিছুর পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য তৈরি করবে সরকার৷ তিনি বলেন, ‘যারা মাদক গ্রহণ করে, কেবল তাদেরই নয়৷ যারা দেশে এই মাদক বিক্রি করছে, তাদেরও পাকড়াও করতে হবে। পাশাপাশি, যাঁরা সুস্থভাবে সমাজে ফিরতে চান, তাঁদের সেই সুযোগ করে দিতে হবে।’ এদিনের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, দুর্নীতি, মাদক ও জঙ্গিবাদকে শেষ করে বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ার একটি শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

[খালেদা জিয়াহীন বিএনপি? প্রক্রিয়া শুরু দলের স্থায়ী কমিটির]

এদিন আওয়ামি লিগ সভানেত্রী আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে এখন যেসব দুর্নীতিগ্রস্তদের দেখা মেলে, তাদের জন্ম হয়েছে ’৭৫-এর পর৷’ এসব দুর্নীতিবাজদের ক্ষত বলে কটাক্ষ করে, তাদের নির্মূল করার নির্দেশ দিয়েছেন হাসিনা৷ শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশকে যদি আমরা এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই, তবে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতিকে রুখতে হবে৷’ অপরাধ প্রবণতা কমানোর জন্য অপরাধের কারণ খুঁজে বের করতে বলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘অপরাধের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের শাস্তি দিলেই কাজ শেষ হয়ে যায় না৷ বরং সমাজকে সুস্থ করে তোলা গুরুত্বপূর্ণ।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং