×

৫ চৈত্র  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ মার্চ ২০১৯   |   শুভ দোলযাত্রা।

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: রোহিঙ্গা ইস্যুতে আরও বিপাকে মায়ানমার৷ রাখাইন প্রদেশ থেকে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়টির বিতরণের ঘটনায় এবার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের প্রস্তুতি শুরু করল ‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল কোর্ট’ বা আইসিসি৷ এই মর্মে বুধবার বাংলাদেশে পৌঁছে গিয়েছে আইসিসি-র সাত সদস্যের প্রতিনিধি দল৷

[পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় বউকে মারধর, গ্রেপ্তার হিরো আলম]

বিদেশমন্ত্রক সূত্রে খবর, এক সপ্তাহের সফর চলাকালীন রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবে আইসিসি-র প্রতিনিধি দল৷ নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিনে খতিয়ে দেখবেন তাঁরা৷ বাংলাদেশের বিভিন্ন শরণার্থী শিবির ঘুরে দেখবেন আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতের তদন্তকারীরা৷ তারপর সমস্ত বিষয় নিয়ে আইসিসি-র কাছে একটি পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেবেন তাঁরা৷ ওই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই রোহিঙ্গা গণহত্যাই পূর্ণাঙ্গ তদন্ত নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে৷ বিশেষজ্ঞদের মতে, এই প্রতিনিধি দলের কাজ অনেকটাই আদালতে মামলা পেশ হওয়ার আগে চার্জশিট বানানোর মতো৷ এদিকে আইসিসি প্রতিনিধি দলটি আসার আগে ঢাকা ঘুরে গিয়েছেন এশিয়া বিষয়ক চিনের বিশেষ দূত সান গুয়োশিয়াং। গত দুই বছরে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশে এলেও এই প্রথমবার রোহিঙ্গাদের দেখতে কক্সবাজারের শিবির পরিদর্শন করেন চিনের বিশেষ দূত। তিনি সোমবার বিদেশ প্রতিমন্ত্রী মহম্মদ শাহরিয়ার আলম এবং মঙ্গলবার বিদেশ সচিব মহম্মদ শহিদুল হকের সঙ্গে বৈঠক করেন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে একমাত্র চিনই আন্তর্জাতিক মঞ্চে একঘরে মায়ানমারের পাশে দাঁড়িয়েছে৷ অনেকেই মনে করছেন এবার পরিস্থিতি বুঝেই রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেন চিনা দূত৷ 

উল্লেখ্য, ২০১৮-র এপ্রিলে রোহিঙ্গা বিতরণ নিয়ে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল কোর্টে আবেদন করেন ফাতোও বেনসুদা নামের এক আইনজীবী। তিনি জানতে চান, রোহিঙ্গা বিতরণের বিষয়টি আইসিসি-র বিচারের এখতিয়ারে পড়ে কি না। তারপরই মায়ানমারের জবাব জানতে চায় আইসিসি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক আদালতের হস্তক্ষেপ মানতে নারাজ মায়ানমার৷ সু কি সরকার সাফ জানিয়ে দেয়, আইসিসি-র সদস্য নয় মায়ানমার তাই রোহিঙ্গা বিতারণের বিষয়টি আইসিসি-র বিচারের আওতায় পড়ে না। শুনানিতে নাইপিদাওয়ের এই যুক্তি খারিজ করে দেয় আদালত৷ বিচারপতি সাফ জানিয়েদেন, ঘটনার বিস্তর প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশে৷ এবং দেশটি আইসিসি-র সদস্য, তাই এনিয়ে তদন্ত করার অধিকার রয়েছে আদালতের৷

                     [বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে জামাতকে নিষিদ্ধ করতে প্রস্তাব মার্কিন কংগ্রেসের]                             

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং