৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘‘চলতি বছরই শুরু হবে পাতালরেল প্রকল্পের কাজ৷’’, মঙ্গলবার এমনই জানালেন বাংলাদেশের সড়ক-পরিবহণ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, ‘‘পাঁচটি ধাপে দেশে পাতালরেল প্রকল্পের কাজ হবে। এমআরটি লাইন ১, এমআরটি লাইন ২, এমআরটি লাইন ৩, এমআরটি লাইন ৪ ও এমআরটি লাইন ৫। ২০৩০-এর মধ্যে সবকটি লাইনের কাজ শেষ হবে।’’ এদিন ঢাকার কাওলায় ‘ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের’ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে যান ওবায়দুল কাদের৷ সেখানেই একথা জানান তিনি৷

[ আরও পড়ুন: রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধান চেয়ে মায়ানমারকে চূড়ান্ত হুঁশিয়ারি রাষ্ট্রসংঘের]

তিনি আরও বলেন, ‘‘এমআরটি লাইন ১ ও ৫–এর কাজ আগে হবে। এমআরটি লাইন ১–এ আছে সাড়ে ১৬ কিলোমিটার, আর ৫–এ আছে সাড়ে ১৩ কিলোমিটার পথ। তারপর অবে অন্যান্য লাইনের কাজ৷’’ এমনকী তিনি জানান, ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেস প্রকল্পের কাজটি পিপিপি মডেলে চলছে। চিনের এক্সিম ব্যাংক এই প্রজেক্টে বিনিয়োগ করছে। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, কুড়িল, বনানী, মহাখালী, তেজগাঁও, মগবাজার, কমলাপুর, সায়েদাবাদ ও যাত্রাবাড়ী, ঢাকা-চট্টগ্রাম সংযোগ হাইওয়ের দৈর্ঘ্য হচ্ছে প্রায় ২০ কিলোমিটার৷ তিনি জানান, প্রকল্পটি তিনটি ধাপে সম্পন্ন হবে। প্রথম ধাপে এয়ারপোর্ট থেকে বনানী, দ্বিতীয় ধাপে বনানী থেকে মগবাজার ও শেষ ধাপে মগবাজার থেকে কুতুবখালী পর্যন্ত হবে রাস্তাটি।

[ আরও পড়ুন: মাদক কারবারে রাজি না হওয়ার জের, কিশোরীবধূকে পুড়িয়ে খুন বাংলাদেশে ]

সম্প্রতি হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে৷ এদিন এই অভিযোগের বিষয়েও মুখ খোলেন ওবায়দুল কাদের৷ বলেন, ‘‘আমরা সব সময়ই বলে আসছি আদালত স্বাধীনভাবে বিচার করছে। শেখ হাসিনার সরকার এখনও পর্যন্ত আদালতের কার্যক্রমে কোনও প্রকার হস্তক্ষেপ করেনি। খালেদা জিয়ার মামলাতেও সরকার হস্তক্ষেপ করেনি।’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং