২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনায় ত্রস্ত বাংলাদেশ, বাড়ছে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: September 21, 2020 2:10 pm|    Updated: September 21, 2020 2:10 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ভারতীয় উপমহাদেশে অব্যাহত করোনা ভাইরাসের মৃত্যুমিছিল। বাংলাদেশে ক্রমেই জটিল হয়ে উঠছে পরিস্থিতি। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এহেন পরিস্থিতিতে এবার দেখা দিয়েছে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা। তাই পরিস্তিতি সামাল দিতে রোডম্যাপ তৈরি করার পরামর্শ দিয়েছে কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি।

[আরও পড়ুন: ভারত থেকে পিঁয়াজ পৌঁছতেই কমল দাম, ছুটির দিন বাংলাদেশের বাজারে রমরমিয়ে বিক্রি]

রবিবার অনুষ্ঠিত ভারচুয়াল সভায় কমিটির চেয়ারপারসন অধ্যাপক মহম্মদ সহিদুল্লার সভাপতিত্বেপরিস্তিতি সামাল দিতে রোডম্যাপ তৈরি করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সভায় জাতীয় পরামর্শক কমিটির সদস্যরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক এ বি এম খুরশীদ আলমের সঙ্গে এই সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। সেখানে উল্লেখ করা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায়ে চ্যালেঞ্জ থাকলেও বর্তমানে পরীক্ষার সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং হাসপাতালের সেবার পরিধি ও মান উন্নয়ন করা হয়েছে। তবে যেসব দিকে এখনো ঘাটতি রয়েছে, সেগুলো পূরণ করে পূর্ণ প্রস্তুতি নিতে হবে। জাতীয় কমিটির সদস্যরা জানান, কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশে সংক্রমণের হার নিম্নমুখী হলেও এ হার এখনও স্বস্তিকর মাত্রায় পৌঁছায়নি।

এদিনের আলোচনা সভায় করোনা ভ্যাকসিন নিয়েও স্বাস্থ্যমন্ত্রক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে জাতীয় পরামর্শক কমিটির দেওয়া পরামর্শ বাস্তবায়ন করার জন্য সুপারিশ করা হয়। পরামর্শক কমিটির মতে, করোনার টিকা উৎপাদনে সারা বিশ্ব সক্রিয় হলেও কার্যকর টিকার প্রাপ্যতা সময়সাপেক্ষ। জীবিকার স্বার্থে লকডাউন জারি রাখা সম্ভব না হওয়ায় জনসাধারণকে আরও সচেতন এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে আরও সক্রিয় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার জন্য সচেতনতামূলক কার্যক্রম জোরদার করার তাগিদ দেওয়া হয় সভায়। কোভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতিতে স্বল্প পরিসরে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আসন্ন দুর্গাপূজা উদ্‌যাপন করার পরামর্শ দিয়েছে জাতীয় কারিগরি কমিটি।

[আরও পড়ুন: ‘পাত্র চাই’ বিজ্ঞাপন দিয়ে সুন্দরী যুবতী হাতিয়ে নিল ৩০ কোটি টাকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement