২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ছানা খেতেই বিপত্তি! ‘বিষক্রিয়া’য় অসুস্থ কালনার একই পরিবারের ১০ সদস্য, মৃত ১

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 30, 2022 3:52 pm|    Updated: June 30, 2022 4:47 pm

1 People of Kalna allegedly died due to food poisoning | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অভিষেক চৌধুরী, কালনা: পরিবারের ১০ জন সদস্য ছানা খেয়েছিলেন। তারপরই একে একে অসুস্থ হয়ে পড়লেন তাঁরা সকলে। চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্যু হল একজনের। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কালনায় (Kalna)। ছানায় বিষক্রিয়ার ফলেই এই মর্মান্তিক ঘটনা, এমনটাই দাবি স্থানীয়দের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়।

ঘটনার সূত্রপাত ২৭ জুন। কালনার প্রামাণিক পরিবারের সদস্যরা ছানা খেয়েছিলেন। অভিযোগ, তারপরই তাঁরা অসুস্থ হয়ে পড়েন। বমি, পেটের সমস্যা, পেট ব্যথা শুরু হয় তাঁদের। সেদিন রাতেই প্রামাণিক পরিবারের দশজন সদস্য একই উপসর্গ নিয়ে কালনা হাসপাতালে ভরতি হন। তাঁদের মধ্যেই ছিলেন গোপাল প্রামাণিক। তাঁর অবস্থা ছিল আশঙ্কাজনক। এদিকে ওই পরিবারের সদস্যরা বাদেও একই উপসর্গ নিয়ে এলাকার আরও কয়েকজন ভরতি হন হাসপাতালে। শুরু হয় চিকিৎসা। বৃহস্পতিবার চিকিৎসা চলাকালীন অবস্থায় মৃত্যু হয় গোপালবাবুর। যদিও তার আগেই এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিল প্রামাণিক পরিবারের সদস্যরা। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ২ ছানা ব্যবসায়ীকে।

[আরও পড়ুন: জন্ম থেকে নেই দু’হাত, পা দিয়েই ব্ল্যাকবোর্ডে ম্যাজিক দেখান প্রাথমিক শিক্ষক জগন্নাথ]

মৃতের পরিবারের দাবি, ছানায় বিষক্রিয়ার কারণেই মৃত্যু হয়েছে গোপালবাবুর। তাঁদের যুক্তি, পরিবারের যে সদস্যরা ছানা খেয়েছিলেন, তাঁরা প্রত্যেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। উপসর্গও এক। কিন্তু যারা ওই ছানা খাননি, তাঁরা সুস্থ রয়েছেন। যদিও এ দাবি নস্যাৎ করে কালনা হাসপাতালের সুপার চিকিৎসক অরূপরতন করন জানান, গোপাল প্রামাণিকের আগে থেকেই হার্টের অসুখ ছিল। তিনি হসপিটালের HDU তে ভরতিও ছিলেন। তাঁর মৃত্যুর কারণ সেই হার্টের সমস্যা। খাবারে বিষক্রিয়ার কারণে কিছু হয়নি।

[আরও পড়ুন: স্কুল শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন বন্ধে কড়া স্কুলশিক্ষা দপ্তর, Fর্IR করতে পারবেন প্রধান শিক্ষকও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে