BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৭  রবিবার ১৭ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনার নয়া প্রজাতির হানার মাঝে সুখবর, নতুন বছরের শুরুতেই রাজ্যে কমল দৈনিক সংক্রমণ

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 1, 2021 8:44 pm|    Updated: January 1, 2021 8:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার (Coronavirus) নয়া প্রজাতির হানা নিয়ে উদ্বেগে সকলেই। তবে তার মধ্যে বছরের শুরুতেই সুখবর। কারণ, বাংলায় কমল সংক্রমিত এবং মৃতের সংখ্যা। সুস্থতার হার বাড়ল বেশ খানিকটা। যা স্বস্তি দিচ্ছে প্রায় সকলকেই। 

রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের শুক্রবারের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১৫৩ জন। জেলাওয়াড়ি হিসাবে ফের সংক্রমণের শীর্ষে কলকাতা। সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ২৮০ জন। তারপরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। দক্ষিণবঙ্গের এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২২৯ জন। তার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ লক্ষ ৫৩ হাজার ২১৬ জন। নতুন বছরের শুরুতেই দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও নিম্নমুখী। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড প্রাণ কেড়েছে ২৬ জনের। তার ফলে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯ হাজার ৭৩৮ জন।

[আরও পড়ুন: কনভয়ের মাঝে উলটো দিক থেকে ঢুকল গাড়ি, বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা বাবুলের]

সুস্থতার হার বেড়েছে বেশ খানিকটা। বর্তমানে বাংলায় ৯৬.১৪ শতাংশ মানুষ করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা জয়ী ১ হাজার ৪৯৬ জন। যা সংক্রমিতের তুলনায় অনেকটাই বেশি। কমেছে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যাও। ১১ হাজার ৬১৬ টি অ্যাকটিভ কেস রয়েছে বাংলায়। তবে বৃহস্পতিবারের তুলনায় শুক্রবার টেস্ট হয়েছে বেশ খানিকটা কম। একদিনে ৩৯ হাজার ১০৯ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। যার ফলে মোট টেস্টের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৫৩৯। তার মধ্যে ৭.৭৪ শতাংশ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। 

করোনার নয়া স্ট্রেনে আক্রান্ত বেশ কয়েকজনের খোঁজ ইতিমধ্যেই কলকাতায় পাওয়া গিয়েছে। ওই স্ট্রেনের ক্ষতিকর ক্ষমতা অনেক বেশি। তাই স্বাভাবিকভাবেই তা সকলের কাছে আতঙ্কের নয়া কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বাংলায় দৈনিক সংক্রমিত এবং মৃতের সংখ্যা কমায় স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছেন অনেকেই। তবে একটু অসাবধান হলে এই পরিস্থিতিতে বিপদ আরও বাড়তে পারে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই অকারণে বাড়ির বাইরে না বেরনোরই পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা। আর অবশ্যই মাস্ক (Mask) এবং স্যানিটাইজার ব্যবহারও প্রয়োজন। সংক্রমণ এড়াতে শারীরিক দূরত্ববিধিও মেনে চলার কথাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

[আরও পড়ুন: ‘রাজ্যের উন্নয়নে বাধা কেন্দ্র’, ‘বিদ্রোহ’ ঘোষণার পর প্রথম দলীয় অনুষ্ঠানে ভোলবদল জিতেন্দ্রর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement