Advertisement
Advertisement
2024 Lok Sabha Election

বামপন্থী মতাদর্শই পুঁজি, চারবার ভোটে হেরেও ফের লোকসভার লড়াইয়ে বোলপুরের SUCI প্রার্থী

প্রার্থী বিজয়কৃষ্ণ দলুই বলছেন, ''আমরা সারা বছর মানুষের সমস্যা নিয়েই থাকি। ভোট শুধুমাত্র আন্দোলনকে শক্তিশালী করার পদ্ধতি মাত্র।''

2024 Lok Sabha Election: SUCI candidate from Bolpur is fighting only to protect ideology of left politics
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:March 31, 2024 7:09 pm
  • Updated:April 1, 2024 1:56 pm

দেব গোস্বামী, বোলপুর: এবারও তিনি প্রার্থী। লড়বেন চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনে (2024 Lok Sabha Election)। রাজনৈতিক মতাদর্শের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বোলপুর(Bolpur) লোকসভা কেন্দ্রে ভোটে লড়বেন বিজয়কৃষ্ণ দলুই। বিশ্বভারতীর রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক পর পর চারবার প্রার্থী হয়ে লড়ে গিয়েছেন জয়ের আশায়। এবারও বোলপুর কেন্দ্র থেকে SUCI প্রার্থী হিসেবে লড়বেন বিজয়কৃষ্ণ দলুই।

বোলপুর কেন্দ্র থেকে SUCI প্রার্থী হিসেবে লড়বেন বিজয়কৃষ্ণ দলুই। নিজস্ব চিত্র।

২০০৪ সালে ৩৪ বছরের যুবক প্রথম প্রার্থী হয়েছিলেন বোলপুর কেন্দ্র থেকে। প্রতিপক্ষ ছিলেন প্রয়াত সিপিএম প্রার্থী সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়। সর্বসাকুল্যে ভোট পেয়েছিলেন ৫৫১৫টি। ২০০৯ সাল, ২০১৪ সাল ও ২০১৯ সালেও ভোটে দাঁড়িয়ে ছিলেন বিজয়। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছিলেন প্রায় ১৫ হাজারের কাছাকাছি। জামানত বাজেয়াপ্ত হলেও তিনি লড়ে যান অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে, কর্মীদের মনোবল বাড়াতে। এসইউসিআই (SUCI) প্রার্থী বিজয়কৃষ্ণ দলুই বলছেন, “সমাজটা ক্রমশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সমাজ পরিবর্তন দরকার। অন্যায়ের বিরুদ্ধে শক্তি বাড়ানোর জন্যই সর্বস্ব দিয়ে ভোটযুদ্ধে লড়াই চলবে। আমরা সারা বছর মানুষের সমস্যা নিয়েই থাকি। ভোট শুধুমাত্র আন্দোলনকে শক্তিশালী করার পদ্ধতি মাত্র। লড়াইয়ের ময়দানে কর্মীরা হয়ে উঠেছেন বিদ্রোহী। নির্বাচনী প্রচারের মাধ্যমে নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন হচ্ছে এবং তারাও সংঘটিত হচ্ছেন।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: মাত্র ১০ লাখে দুই বেডরুমের ফ্ল্যাট গার্ডেনরিচে! তদন্তে নেমে চক্ষু চড়কগাছ আধিকারিকদের]

তবে এসইউসিআই কর্মী, সমর্থকরা অনেকটাই উজ্জীবিত এবারেও প্রার্থী হিসাবে পেয়েছেন তাঁদের শিক্ষককে। কর্মী-সমর্থকদের কথায়, “আমরাই চাঁদা তুলে  চুন রং করে দেওয়াল লিখি। বাড়ি বাড়ি অর্থ সংগ্রহ করে জনসংযোগ, প্রচার করি। শুভানুধ্যায়ীদের অর্থে প্রায় ১ লক্ষ টাকা খরচে নির্বাচন সুসম্পন্ন হয়ে যায়। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের বিশেষ করে তৃণমূল এবং বিজেপির এক একটি বুথের খরচ বাবদ অর্থ।বরং রাস্তার আন্দোলনে থাকব।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘বাঁকুড়ার অসুর সুভাষকে বধ করতে সাহায্য করুন’, দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধেই সরব বিজেপির একাংশ]

যদিও রাজনৈতিক মহলের ধারণা, কখনও তৃণমূল তাদের ছাতার মতো আশ্রয় দেয়। কখনও আবার গলা ফাটান, মার্ক্সবাদকে আক্রমণ করা যাবে না। সিপিএমের (CPM) সঙ্গে একমঞ্চে থাকেন না। এদের অবস্থান স্পষ্ট নয়। তাই আশা ভরসাও নেই সাধারণ ভোটারদের।” তবে সৎ মানসিকতায় লড়াইয়ের ময়দানে থেকে ‘স্পর্ধা’ দেখানোটাই তাৎপর্যপূর্ণ বলছেন কেউ কেউ। তবে প্রতিপক্ষ তৃণমূল, বিজেপি ও সিপিএম প্রার্থীরা গুরুত্ব না দিলেও জনজীবনের জ্বলন্ত সমস্যা সমাধানের জন্য গণ-আন্দোলন গড়ে তোলার অঙ্গীকার নিয়ে ক্ষমতার দিকে না তাকিয়ে নিজেদের আদর্শেই অটুট প্রার্থী বিজয়কৃষ্ণ দলুই।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ