BREAKING NEWS

২৪ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ৮ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভোটের মরশুমে রেকর্ড সংক্রমণ রাজ্যে, একদিনে করোনা আক্রান্ত ৮ হাজার ৪১৯ জন

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 18, 2021 7:38 pm|    Updated: April 18, 2021 7:42 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটের মরশুমে ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি। একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮,৪১৯ জন। অর্থাৎ এদিনও উর্ধ্বমুখী কোভিড (COVID-19) গ্রাফ। তবে অত্যন্ত সামান্য হলেও কমেছে মৃত্যু। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি কার্যত ঘুম উড়িয়েছে আমজনতার।

স্বাস্থ্যদপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত  ৮,৪১৯ জনের মধ্যে ২,১৯৭ জনই কলকাতার। অর্থাৎ দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে এদিনও প্রথম স্থানে তিলোত্তমা। দ্বিতীয় স্থানে উত্তর ২৪ পরগনা। সেখানকারও একহাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এদিন। নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ১,৮০৭ জন। তৃতীয় স্থানে দক্ষিণ ২৪ পরগনা। একদিনে নতুন করে করোনা থাবা বসিয়ে সেখানকার ৫০১ জনের শরীরে। হাওড়া রয়েছে চতুর্থ স্থানে। একদিনে আক্রান্ত সেখানকার ৪৯০ জন। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের করোনা গ্রাফও রীতিমতো ভয় ধরিয়েছে সেখানকার বাসিন্দাদের। সব জেলা থেকেই মিলেছে নতুন সংক্রমিতের হদিশ। ফলে রাজ্যের মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬,৫৯, ৯২৭। 

[আরও পড়ুন: ভোট মিটতেই রাজনৈতিক সংঘর্ষে রণক্ষেত্র বর্ধমান, আক্রান্ত তৃণমূল প্রার্থী, বাইকে আগুন]

একদিনে করোনা রাজ্যের যে ২৮ জনের প্রাণ কেড়েছে তাঁদের মধ্যে ৬ জনই উত্তর ২৪ পরগনার। অর্থাৎ দৈনিক মৃত্যুর নিরিখে প্রথম স্থানে ওই জেলা। দ্বিতীয়ে কলকাতা। একদিনে মৃত্যু হয়েছে সেখানকার ৫ জনের। মোট করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০, ৫৬৮। একদিনে করোনাকে পরাস্ত করে ঘরে ফিরেছেন ৪,০৫৩ জন। তাঁদের মধ্যে ১,০৬১ জন কলকাতার। অর্থাৎ সংক্রমণের পাশাপাশি সুস্থতার নিরিখেও প্রথম স্থানে তিলোত্তমা। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড টেস্ট হয়েছে ৪৬, ০৭৪ জনের। 

দেশজুড়েই করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। ব্যতিক্রম নয় বাংলাও। দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় ভোটের মরশুমে হু হু করে বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। রাজনৈতিক প্রচার, মিছিলে রাশ টেনে, করোনাবিধি মেনে ভোট সম্পন্ন করার কথা বলা হলেও নিয়মভঙ্গও চলছে দেদার। প্রার্থীরাও আক্রান্ত হচ্ছেন। আর তাঁদের সংস্পর্শে আসা জনতারও সংক্রমণের ঝুঁকি থাকছে। তার মধ্যে আবার এ রাজ্যে ভ্যাকসিন সরবরাহ কম। জেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলিতে আকাল পড়েছে টিকার। ফলে টিকা নিতে গিয়েও ফিরে আসতে হচ্ছে জনগণকে। এই অবস্থায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলাও বাধার মুখে পড়ছে।    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement