BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় বয়কটের মুখে আদিবাসী পরিবার, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 4, 2020 10:02 pm|    Updated: May 4, 2020 10:02 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর: করোনা সংক্রান্ত গুজব সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এর ফলে এক আদিবাসী পরিবারকে সাময়িকভাবে সামাজিক বয়কটের মুখে পড়তে হয়েছে। আবার ওই গুজবের জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে নদিয়ার নবদ্বীপ ও পাশের জেলা পূর্ব বর্ধমানের নাদনঘাট থানা এলাকার মানুষের মধ্যে। তা জানতে পেরে তদন্তে নেমে সোশ্যাল মিডিয়া গুজব ছড়ানোর অভিযোগে অভিযুক্ত অক্ষয় বিশ্বাস নামে ওই যুবককে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে নবদ্বীপ থানার পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবকের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৫বি এবং ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আইনে ৫৪বি ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নবদ্বীপ পুরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যাদরাপাড়া এলাকার সর্দারপাড়ায় আদিবাসী পরিবারের এক মহিলার করোনা উপসর্গ দেখা দিয়েছে বলে অক্ষয় বিশ্বাস নামে ওই যুবক সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে। সে তার পোস্টে লেখে, ‘ওই এলাকায় বেশকিছু দিন আগে একটি মেয়ের মধ্যে করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভরতি হতে হয়। এবার তার মায়েরও একই উপসর্গ দেখা দিয়েছে। আমরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি।’

[ আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত কলকাতা পুলিশের আরও এক আধিকারিক, বাড়ছে আতঙ্ক ]

এরপর এই পোস্টকে ঘিরে নবদ্বীপ ও তার আশেপাশের এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বহু মানুষ আতঙ্কিত হয়ে বিভিন্ন জায়গায় ফোন করতে শুরু করেন। চাঞ্চল্যকর বিষয় হল, এই পোস্টের জেরে ওই পরিবারটিকে সাময়িকভাবে সামাজিক বয়কটের মুখে পড়তে হয়। ওই পরিবারের এক সদস্যের অভিযোগ, ‘কাজে গেলে আমাদের কাজ দেওয়া হচ্ছে না। মুদির দোকানে গেলেও দোকানদার জানিয়ে দিচ্ছে, তোমাদের কাছে কোনও জিনিস বিক্রি করা যাবে না।’ পুরো বিষয়টি জানার পর অবশ্য ওই যুবকের বিরুদ্ধে নির্যাতিত পরিবারের এক সদস্য নবদ্বীপ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগ পাওয়ার পরই পুলিশ অভিযুক্ত ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অক্ষয় বিশ্বাস নামে ওই যুবক নবদ্বীপ দক্ষিণ অঞ্চলের বিজেপির যুব মোর্চার একজন সক্রিয় কর্মী বলে পরিচিত। ওই বিষয়ে জেলা বিজেপির সম্পাদকমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য নবীন চক্রবর্তীর বক্তব্য, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনও খারাপ বিষয় নিয়ে লেখা ছিল না। কাউকে অসম্মানিতও করা হয়নি। তৃণমূল প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে বিজেপি নেতৃত্বের নামে মিথ্যা মামলা করেছে।’ অবশ্য ওই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত নবদ্বীপ পুরসভার চেয়ারম্যান বিমানকৃষ্ণ সাহা জানিয়েছেন, ‘বিজেপি চিরকালই মানুষ বিরোধী কথা বলে। মৃতদেহ পোড়ানো থেকে রেশন, সবেতেই মিথ্যা প্রচার করে সাধারণ মানুষকে উত্তেজিত করে শান্ত পরিস্থিতিকে অশান্ত করে তুলতে চাইছে। তবে মানুষ যথেষ্ট সচেতন।’

[ আরও পড়ুন: ‘কাছে নয়, মনে থাকুন’, সামাজিক দূরত্বের বার্তা দিয়ে নয়া পোস্টার পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement