৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: ডাম্পারের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক মহিলা ও এক প্রতিবন্ধী যুবতীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠল এলাকা। রবিবার সকালে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়া-বরাকর রাজ্য সড়কের রঘুনাথপুরে। দুর্ঘটনার পরই উত্তেজিত জনতা আগুন লাগিয়ে দেয় ঘাতক ডাম্পারটিতে। গাফিলতির অভিযোগ তুলে মারধর করা হয় কর্তব্যরত সিভিক ভলান্টিয়রদের। ঘটনার জেরে দীর্ঘক্ষণ রাজ্য সড়কে ব্যাহত হয় যান চলাচল। তবে বর্তমানে স্বাভাবিক পরিস্থিতি।

[আরও পড়ুন:সিগন্যাল ভেঙে বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কা, জাতীয় সড়কে মৃত্যু কর্তব্যরত সাব ইনস্পেক্টরের]

রবিবার সকাল সাড়ে ১১ টা নাগাদ পুরুলিয়া-বরাকর রাজ্য সড়কের রঘুনাথপুরে ঘটে দুর্ঘটনাটি। জানা গিয়েছে, এদিন সকালে মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে পুরুলিয়ার নন্দুওয়ারায় অন্য মেয়ের শ্বশুরবাড়ি থেকে ফিরছিলেন বনমালা মুখোপাধ্যায় নামে ওই মহিলা। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন এক ব্যক্তি। স্কুটারে এক ব্যক্তি বনমালিদেবী ও তাঁর মেয়েকে বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। বাঁকুড়া রোড থেকে পুরুলিয়া-বরাকর রোডে ওঠার সময় আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উলটে যায় স্কুটারটি। রাস্তায় ছিটকে পড়েন স্কুটার চালক ও ২ আরোহী। সেই সময় বরাকরের দিক থেকে দ্রুত গতিতে আসা একটি ডাম্পার পিষে দেয় ওই মহিলা ও তাঁর প্রতিবন্ধী সন্তানকে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁদের।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। ঘাতক ডাম্পারটিতে ভাঙচুরের পর আগুন লাগিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগ তুলে এলাকার কর্তব্যরত সিভিক ভলান্টিয়রদেরও মারধর করে স্থানীয়রা। ঘটনার জেরে প্রায় ২ ঘণ্টা যান চলাচল ব্যাহত হয় রাজ্য সড়কে। তবে বর্তমানে স্বাভাবিক হয়েছে পরিস্থিতি। জানা গিয়েছে, পূর্ব বর্ধমানের কুলটির বাসিন্দা মৃতেরা। তবে আহত স্কুটার চালকের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। পুলিশের তরফে ইতিমধ্যেই দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। 

ছবি: সুনীতা সিং

[আরও পড়ুন:মাঝরাতে বাইকে চড়ে দুষ্কৃতীদের হানা, গুলিতে খুন আসানসোলের তৃণমূল কাউন্সিলর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং