BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

তন্ময়কে ভর্ৎসনা, বাড়ছে নিচুতলার কর্মীদের ক্ষোভ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 28, 2016 12:02 pm|    Updated: June 28, 2016 12:02 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কংগ্রেসের মিছিলে যোগ দেওয়ায় সূর্যকান্ত মিশ্র ও বিমান বসুদের ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হয়েছিল বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্যকে৷ ভর্ৎসনার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই নিচুতলার নেতৃত্বের পাল্টা তোপের মুখে পড়লেন বিমান, সূর্যরা৷ তন্ময় ভট্টাচার্য যে জেলা থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন, সোমবার সেই জেলা নেতৃত্বের তোপের মখে পড়েন পার্টির রাজ্য সম্পাদক ও বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান৷ এদিন উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির বৈঠকে হাজির হয়ে তন্ময় ইস্যুতে বেশ কিছু অপ্রিয় প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় বঙ্গ সিপিএমের জোটপন্থী এই দুই শীর্ষনেতাকে৷ জেলার সতীর্থদের পাশে পেয়ে রাজ্যে নেতৃত্বকেও এক হাত নিয়েছেন তন্ময় ভট্টাচার্য নিজেও৷ কার্যত তোপ দাগার সুরে তন্ময় বলেন, “প্রকাশ্যে ভর্ৎসনা না করে পার্টি আমার সঙ্গে কথা বলতে পারত৷” জেলা কমিটির সভার পাশাপাশি এদিন তন্ময় ইস্যুতে সরগরম ছিল বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলের ঘরও৷ সেখানেও বার-বার আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে ওঠেন দমদমের এই বিধায়ক৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে বির্তকিত এই বিধায়কের সঙ্গে আলাদা করে কথা বলেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী৷ তবে সুযোগ বুঝে পরিষদীয় দলনেতাকেও দু-চার কথা শুনিয়ে দিতেও ছাড়েননি তন্ময় ভট্টাচার্য৷
সোমবার ছিল উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির বৈঠক৷ এই বৈঠকে মূল আলোচ্য বিষয় ছিল জেলায় নির্বাচনে বামেদের ভরাডুবি নিয়ে পর্যালোচনা৷ গুরুত্বপূর্ণ এই বৈঠকে হাজির হন রাজ্য সিপিএমের দুই শীর্ষনেতা৷ ভোট নিয়ে আলোচনা কথা থাকলেও তন্ময় ভট্টাচার্যকে নিয়েই বৈঠক উত্তাল হয় বলে সিপিএম সূত্রে খবর৷ এদিন বৈঠকে উপস্থিত হতেই জেলা কমিটির সদস্যদের তোপের মুখে পড়েন সূর্যকান্ত মিশ্র ও বিমান বসু৷ জেলা কমিটির সদস্যরা সিপিএমের এই দুই শীর্ষ নেতাকে সরাসরি প্রশ্ন করেন, তন্ময় কী ভুল করেছে জবাব দিন৷ একদিকে বিধানসভায় কংগ্রেসের সঙ্গে হাতধরাধরি করে ওয়াকআউট করছে সিপিএম বিধায়করা৷ একসঙ্গে প্রেস বিবৃতি দেওয়া হচ্ছে৷ তা হলে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কংগ্রেসের মিছিলে শামিল হয়ে তন্ময় ভট্টাচার্য কি অপরাধ করেছে৷ সিপিএম সূত্রে খবর এদিন জেলা কমিটির অধিকাংশ সদস্যই তন্ময় ভট্টাচার্যর হয়ে সওয়াল করেন৷ তবে তন্ময় ইস্যু ছাড়াও এদিন জেলা কমিটির সদস্যরা দলের এই দুই শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে জোটের ভবিষ্যত্‍ সম্পর্কে জানতে চান৷ উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির একাধিক সদস্য এদিন সূর্যকান্ত মিশ্র-বিমান বসুদের সরাসরি প্রশ্ন করেন, জোটের প্রশ্নে পার্টির অবস্থান কী তা স্পষ্ট করুন৷ দয়া করে ঢাকঢাক গুড়গুড় করবেন না৷ অনেক হয়েছে, এবার ঝেড়ে কাশুন৷ জেলা কমিটির দস্যদের মুখে এহেন প্রশ্নের মুখে পরে বিমান-সূর্যরা অস্বস্তিতে পড়ে যান বলে সিপিএম সূত্রে খবর৷
অন্যদিকে, এদিন বিধানসভাতেও বাম পরিষদীয় দলে আলোচনার মধ্যমণি ছিলেন তন্ময়৷ এই প্রসঙ্গে বামেদের দলনেতা সুজন চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, “তন্ময় আমাদের পার্টিরই নেতা৷ দলের তরফ থেকে যা মনোভাব নেওয়ার নেওয়া হয়েছে৷ তাকে বলা হয়েছে এভাবে চলা ঠিক নয়৷ তিনি নিশ্চই সতর্ক থাকবেন বলে আমার বিশ্বাস৷” পার্টির শীর্ষ নেতৃত্বকে কটাক্ষের সুরে তন্ময় বলেন, “প্রকাশ্যে বিবৃতি না দিয়ে আমার সঙ্গে কথা বলতে পারত৷” তবে অবশ্য বিধানসভা কক্ষে পোলবা ইস্যুতে প্রশ্ন করতে গেলে পাল্টা কটাক্ষ শুনতে হয় তন্ময় ভট্টাচার্যকে৷ শাসকদলের তরফে কটূক্তি ভেসে আসে, “আপনার দলের নেতাই আপনাকে প্রকাশ্যে ভর্ৎসনা করে৷ আপনি এখানে এত কথা বলছেন কেন?” তৃণমূল বিধায়কদের এই প্রশ্ন শুনে কার্যত অস্বস্তিতে পড়ে যান তিনি৷‬

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement