১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিরোধীশূন্য বিধানসভায় পাশ ভাঙচুর বিরোধী বিল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 8, 2017 10:49 am|    Updated: February 8, 2017 10:49 am

Amid Chaos vandal bill passed in west bengal assembly

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিরোধীশূন্য বিধানসভা৷ তুমুল ডামাডোল৷ তার মধ্যেই ধ্বনিভোটে পাশ হল ভাঙচুর বিরোধী হিল৷

এদিন এই বিল পেশ করা নিয়ে নজিরবিহীন গণ্ডগোলের সাক্ষী থাকে বিধানসভা৷ বিল পেশ করার সময় বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বিরোধীরা৷ পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে গেলে বিরোধী দলনেতাকে সাসপেন্ড করেন অধ্যক্ষ৷ এরপরই অবস্থা আরও ঘোরালো হয়৷ কক্ষের বাইরে যেতে নারাজ হন মান্নান সাহেব৷ মার্শালরা তাঁকে বাইরে বের করতে গেলে বাধা দেন বিরোধী বিধায়করা৷ তা নিয়ে তুমুল হট্টগোল বাধে৷ পরে বিরোধী দলনেতাকে বাইরে বের করে আনা হয়৷ অসুস্থ বোধ করায় তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ হাসপাতালে তাঁকে দেখতে যান আরেক প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও বিধায়ক মানস ভুঁইয়া এবং মন্ত্রী শশী পাঁজা। সংসদীয় গণতন্ত্রে আজকের দিনটি কালো দিন বলে আখ্যা দেন সুজন চক্রবর্তী-সহ অন্যান্য বিরোধীরা৷

বিধানসভায় নজিরবিহীন গণ্ডগোল, সাসপেন্ড বিরোধী দলনেতা

16586754_1350532558355035_626428790_o

এদিকে তুমুল হট্টগোলের মধ্যেও বিধানসভার কাজ বন্ধ করেননি স্পিকার৷ ফলে কার্যত বিরোধীশূন্য বিধানসভায় ধ্বনিভোটে পাশ হয়ে যায় ভাঙচুর বিরোধী বিল৷ পুরো ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন শাসকদলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ জানিয়েছেন, বিরোধীরা আজ যা করলেন তাতে কলুষিত হয়েছে বিধানসভা৷ একই মত বর্ষিয়াণ বিধায়ক সুব্রত মুখোপাধ্যায়৷ দীর্ঘদিন তিনি বিধানসভার অন্দরের নানা ঘটনার সাক্ষী৷ কিন্তু এরকম ঘটনা স্মরণে আনতে পারছেন না তিনিও৷ জানান, বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে বিরোধিতা করলে এই পরিস্থিতি তৈরি হত না৷ বিল পেশের সময় যে কোনও রকম বিরোধিতা করা যেতেই পারে৷ কিন্তু তার একটি প্রক্রিয়া থাকা উচিত বলেই মনে করেন তিনি৷ আজকের পরিস্থিতিতে তিনি বিরোধী দলনেতা থাকলে, স্পিকারের নির্দেশ মেনে নিতেন বলেই জানা বর্ষিয়াণ এই রাজনীতিবিদ৷

16559122_1350532605021697_1941506536_n

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে