BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শনিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধর্ষণের অভিযোগ উঠতেই উধাও বিজেপি নেতার ভাইপো, বাড়ির দেওয়ালেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানার নোটিস

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 8, 2020 5:18 pm|    Updated: November 8, 2020 5:18 pm

An Images

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: বেশ কিছুদিন আগেই প্রতিবেশী বিজেপি (BJP) কর্মীর মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল পশ্চিম বর্ধমানের বিজেপি সভাপতির ভাইপোর বিরুদ্ধে। সেই থেকেই পলাতক অভিযুক্ত। এবার ওই যুবকের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা সাঁটিয়ে দেওয়া হল বাড়িতে। অভিযুক্তের পরিবারের দাবি, গোটা ঘটনাই তৃণমূলের চক্রান্ত। পালটা দিয়ে অভিযুক্তের শাস্তির দাবি জানিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতারা।

An arrest warrant in the name of the BJP leader's nephew hung on the wall of accused house

ঘটনার সূত্রপাত মাস ছয়েক আগে। ওই সময় পশ্চিম বর্ধমানের বিজেপি জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘড়ুইয়ের ভাইপোর বিরুদ্ধে কাঁকসার আমলাজোড়া পঞ্চায়েতের বাবনাবেড়া গ্রামের বাসিন্দা এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। সুবিচারের আশায় পুলিশের দ্বারস্থ হয়ে গোটা বিষয়টি জানায় নির্যাতিতার পরিবার। লিখিত অভিযোগও দায়ের করে। এরপরই এলাকা ছাড়ে অভিযুক্ত যুবক। অভিযোগ, নির্যাতিতার বাবা এলাকার সক্রিয় বিজেপি কর্মী হওয়া সত্ত্বেও মামলা তুলে নেওয়ার জন্য দলের তরফেই লাগাতার তাঁকে চাপ দেওয়া হয়। এক পর্যায়ে বাধ্য হয়ে শাসকদলে যোগ দেন তিনি। এতেও বন্ধ হয়নি হেনস্তা।

[আরও পড়ুন: ‘ট্রাম্প গেল, এবার মোদিও ফুটে যাবে’, অমিত শাহকে খোঁচা দিয়ে মন্তব্য অনুব্রতর]

জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন পর রবিবার দুর্গাপুর আদালতের নির্দেশে অভিযুক্তের বাড়িতে সাঁটানো হয় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা। এ প্রসঙ্গে অভিযুক্তের দাদা বলেন, “সাত মাস বাড়িতে নেই ভাই। প্রেম ঘটিত ব্যাপারকে রাজনৈতিক রূপ দিয়েছে তৃণমূল। তাদের সঙ্গে বিজেপিরও একাংশ রয়েছেন।” পালটা তৃণমূলের কাঁকসা ব্লক সভাপতি দেবদাস বক্সি বলেন, “নির্যাতিতার বাবাকে অভিযোগ তোলার জন্যে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছিল বিজেপি। তাই তিনি দোষীর শাস্তির দাবি নিয়ে আমাদের দলে যোগ দেন। আদালত সঠিক পদক্ষেপই নিয়েছে।”

ছবি: উদয়ন গুহরায়

[আরও পড়ুন: রাজ্যে সামান্য কমল দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, সংক্রমণের নিরিখে ফের শীর্ষে কলকাতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement