৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বৃদ্ধ বাবাকে বিষ খাইয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল ছেলে এবং পুত্রবধূর বিরুদ্ধে। নৃশংস এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের নিকারিকাটার বেলেখালি গ্রামে। এই ঘটনায় স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে এখনও গ্রেপ্তার হয়নি কেউই।

বদ্রীনাথ সর্দার নামে ওই বৃদ্ধের তিন সন্তান। পুত্রসন্তানদের বিয়ে হয়েছে বহুদিন। স্ত্রী জীবিতও রয়েছে তাঁর। বয়সের ভারে প্রায় ন্যুব্জ তিনি। তাই আর বিশেষ কাজ করতে পারেননা তিনি। বাধ্য হয়ে ছেলেদের উপার্জনেই পেটের ভাত জোটে বৃদ্ধের। বড় ছেলের সংসারে দিন কাটত বদ্রীনাথের। অভিযোগ, ওই বৃদ্ধের বড় এবং মেজো ছেলে তাঁর সম্পত্তি লিখিয়ে নিয়েছে। এই নিয়ে সবার প্রথম আপত্তি জানায় ছোট ছেলে। দাদাদের সঙ্গে এই নিয়ে প্রায়শই অশান্তি হত তাঁর।

[আরও পড়ুন: বেলদায় সংকল্প যাত্রার মঞ্চে উলটো জাতীয় পতাকা! বিতর্কে বিজেপি]

এই অশান্তির জেরে বৃদ্ধের ছোট ছেলে ক্যানিংয়ে আলাদা বাড়িতে থাকতেন। প্রতিবেশীদের দাবি, দিনকয়েক আগে সেখানেই গিয়েছিলেন বছর বাহাত্তরের বদ্রীনাথ সর্দার। তা নিয়ে বড় ছেলে এবং বউমার ঝামেলাও হয়েছে। অভিযোগ, সেই অশান্তির জেরে বড় ছেলে এবং বউমা বৃদ্ধকে ভাতের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে দেয়। পরিবারের ছোট ছেলের পাশাপাশি একই অভিযোগে সরব মেজো ছেলে এবং বৃদ্ধের পুত্রবধূরাও। সোমবার সকালে আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই বৃদ্ধ। তাঁকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা শুরু করেন চিকিৎসকরা। দীর্ঘক্ষণ হাসপাতালের বেডে শুয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েন ওই বৃদ্ধ। তবে শেষমেশ হার মানেন তিনি। মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধের।

ক্যানিং থানার পুলিশ হাসপাতালে পৌঁছায়। অসহায় বৃদ্ধের নিথর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনার পরই এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছে ওই বৃদ্ধের বড় ছেলে এবং পুত্রবধূ। অভিযুক্তদের খোঁজে চলছে জোর তল্লাশি। পুলিশ এখনও তাদের খোঁজ পায়নি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং