BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বছরশেষে উলটো সুর, নিন্দা ছেড়ে এবার জিতেন্দ্র তিওয়ারির প্রশংসায় বাবুল সুপ্রিয়

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 31, 2020 7:58 pm|    Updated: December 31, 2020 7:58 pm

An Images

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: বছর শেষে রাজনৈতিক কূটকচালি শেষ। এবার বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriyo) মুখে শোনা গেল জিতেন্দ্র তিওয়ারির প্রশংসা। গত ১০ বছরে রাজ্যে কোনও উন্নয়ন হয়নি, এই মর্মে বিজেপির তোলা অভিযোগকে দেরিতে হলেও সমর্থন করেছেন আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র তথা তৃণমূল বিধায়ক জিতেন্দ্র। সে কথা উল্লেখ করেই তাঁর প্রশংসা করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

বৃহস্পতিবার বছরের শেষ দিন পশ্চিম বর্ধমানের অন্ডালে বিজেপির ”আর নয় অন্যায়” কর্মসূচিতে যোগ দেন আসানসোলের (Asansol) বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। সেখা ছিলেন দলের জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘোড়ুই-সহ অন্যান্য নেতারা। এই কর্মসূচি উপলক্ষে মিছিল শেষে খাঁন্দরা বটতলা বাসস্ট্যান্ডে সভা হয়। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বাবুল উন্নয়নে নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন। পরে তিনি সংবাদমাধ্যমে বলেন, “দশ বছরের তৃণমূল আমলে এলাকার কোনও উন্নয়ন হয়নি। উন্নয়ন হয়েছে শাসকদলের নেতাদের জীবন যাপনে।”

[আরও পড়ুন: সদ্যোজাত কন্যাকে জীবন্ত কবর! চিৎকার শুনে খুদের প্রাণ বাঁচালেন প্রতিবেশীরা]

তিনি আরও বলেন, “আসানসোল এলাকায় কেন্দ্রীয় সরকারের অনেক প্রকল্পের কাজ করতে দেয়নি শাসকদল। আমরা এ কথা বললে বলবেন, মিথ্যা অভিযোগ করছি। কিন্তু দেরিতে হলেও সত্যি কথাটা স্বীকার করে নিয়েছেন আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি (Jitendra Tiwari)। তাঁর কথাতেই প্রমাণ হয়ে গিয়েছে, রাজনৈতিক কারণেই আসানসোল এলাকায় উন্নতি করতে দেয়নি তৃণমূল সরকার।”

এদিনের বক্তব্যে বাবুল সুপ্রিয় কয়লা ও গরু পাচারের রাজ্যজুড়ে সিবিআই তল্লাশি নিয়েও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করেন। এসব ঘটনায় পরবর্তীতে শাসকদলের নেতা, মন্ত্রীদের নামও উঠে আসবে বলে দাবি তাঁর। শাসকদলকে কটাক্ষ করে তাঁর মন্তব্য, “অনেক শখ করে আলিপুর সংশোধনাগার নীল-সাদা রং করেছে সরকার। ভোটের পর ওখানেই থাকবে সবাই। ওটাই তখন তৃণমূলের পার্টি অফিস হবে।”

[আরও পড়ুন: সরকারি চাকরি পেয়েই মন বদলেছে স্ত্রীর! শ্বশুরবাড়ির সামনে ধরনায় পেশায় রাজমিস্ত্রি স্বামী]

তবে বৃহস্পতিবার খাঁন্দরায় দলীয় কর্মসূচিতে আসার পথে অন্য ভূমিকায় দেখা গেল গায়ক বাবুলকে। সবুজ সমিতির মাঠে কচিকাঁচাদের ক্রিকেট প্রশিক্ষণ চলছিল। তা দেখেই গাড়ি থেকে নেমে সোজা মাঠে হাজির হয়ে যান বাবুল। সেখানে খুদে ক্রিকেটারদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ সময় কাটান তিনি। ব্যাটও করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement