BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

তৃণমূল নেতা খুনের জের, বনধের চেহারা বাগনানে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 5, 2018 1:57 pm|    Updated: June 5, 2018 1:57 pm

Bagnan boils after TMC leader’s murder

সন্দীপ মজুমদার, উলুবেড়িয়া: তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মহসিন খান খুনের পর থেকে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে গোটা বাগনান। এলাকা কার্যত অঘোষিত বনধের চেহারা নিয়েছে। সোমবার রাতে বাগনানের হাটুড়িয়ায় ঘটনাটি ঘটার পর গভীর রাত পর্যন্ত ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা। তারপর ফের মঙ্গলবার সকাল থেকে আমতা বাগনান রোড অবরোধ করে তারা। মঙ্গলবার সকাল থেকে বাগনানের কোনও দোকানপাট খোলেনি। বসেনি বাজারও।

[ বাগনানে খুন তৃণমূল নেতা, অভিযোগের তির বিজেপির দিকে ]

মহসিন খানকে খুনের ঘটনায় পুলিশ তিন জনকে আটক করেছে। সোমবার রাত সাড়ে ন’টা নাগাদ বাগনান নারকেলডাঙ্গায় পার্টি কর্মীদের সঙ্গে আড্ডার পর বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। পথে তিন দুষ্কৃতী বাইকে করে এসে মহসিনের মাথায় পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ। মহসিনকে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপরেই তৃণমূল কর্মীরা মহসিনের মৃতদেহ নিয়ে ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন। অভিযোগ, এই ঘটনায় অভিযুক্ত শেখ আশরাফ ও হ্যাপির বাড়িতে চড়াও হয় স্থানীয় বাসিন্দারা। তারা অভিযুক্তদের বাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে বলেও অভিযোগ। রাতেই দমকলের দু’টি ইঞ্জিন গিয়ে আগুন নেভায়। এই খুনের পিছনে বিজেপির হাত আছে বলে অভিযোগ জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

[ রেশনের চাল পাচারের সময় পাকড়াও যুবক, রাতভর আটকে রাখলেন বাসিন্দারা ]

মহসিন তৃণমূলের হাটুড়িয়া-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের বুথ কমিটির সভাপতি ছিলেন। এর আগে তিনি এই গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য ছিলেন। এবার ওই আসনটি মহিলা সংরক্ষিত হওয়ায় তাঁর স্ত্রী নূরন্বেষা বেগম তৃণমূলের প্রার্থী হন এবং জয়ীও হন। পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় শেখ আশরাফ ও হ‍্যাপির নেতৃত্বে ওই এলাকার বেশ কিছু তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। নির্বাচনের সময় আসরাফ বিজেপির সমর্থন নিয়ে নির্দল প্রার্থীকে সমর্থন করেছিলেন বলে খবর। নির্বাচনের দিন ওই এলাকায় তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় বেশ কিছু বাড়ি ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগ করা হয়। এমনকী ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে পুলিশকে মারধর এবং পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনার জেরেই মহসিন খানকে খুন হতে হয় বলে পুলিশের অনুমান।

সোমবার রাত থেকেই গোটা এলাকায় পুলিশ ও RAF মোতায়েন করা হয়েছে। হাটুরিয়া নওপাড়া-সহ গোটা বাগনানে চাপা উত্তেজনা রয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে