BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চুক্তি ভেঙে ভারতের জমি দখল করল বাংলাদেশ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 3, 2016 9:19 am|    Updated: October 3, 2016 9:19 am

Bangladesh Forcefuly Added India's Land In Their Map

শান্তনু কর: চুক্তির পরেও মেটেনি সমস্যা৷ বরং সাড়ে ১৪ বিঘা জমি হারাবার ভয়ে প্রহর গুনছে জলপাইগুড়ির সীমান্ত গ্রাম দক্ষিণ বেরুবাড়ি৷ ভারতের জমি হলেও সম্প্রতি বাংলাদেশ তাদের মানচিত্রে বেরুবাড়ির নওজোয়াপাড়া গ্রামের সাড়ে ১৪ বিঘা জমিকে অন্তর্ভুক্ত করেছে৷ আর তাতেই সিঁদুর মেঘ দেখছেন এলাকার বাসিন্দারা৷ প্রয়োজনে জমিরক্ষায় বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন গ্রামবাসীরা৷
ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে নওজোয়াপাড়া গ্রাম ভৌগোলিকভাবে অনেকটা পাখির ঠোঁটের মতো৷ ১৯৮৬ সালে এই এলাকার ২৫ নম্বর সিটের ১৬ বিঘা জমি বাংলাদেশ নিজেদের দখলে রেকর্ড করে নেয়৷ ওই জমি ও তার আশপাশে কোনও বসতি না থাকায় আপত্তি তোলেননি গ্রামবাসীরা৷ কিন্তু এবার ওই একই সিটের ১০ থেকে ৩০ নম্বর পিলার পর্যন্ত সাড়ে ১৪ বিঘা জমি নিজেদের দখলে আনার প্রক্রিয়া শুরু করেছে বাংলাদেশ৷ আর এই খবরেই নওজোয়াপাড়া গ্রাম তেতে উঠেছে৷
বেরুবাড়ি সীমান্ত সুরক্ষা কমিটির সম্পাদক সারদাপ্রসাদ দাস বলেন, “এর আগেও বাংলাদেশ এই জমি দখলের চেষ্টা করেছে৷ কিন্তু আমাদের বাধায় তা সম্ভব হয়নি৷ ১৯৯৮ সালে দু’দেশের সার্ভেয়ারের মধ্যে চুক্তি হয়৷ সেই চুক্তি অনুযায়ী সাড়ে ১৪ বিঘা জমি ভারতের বলে মেনে নেওয়া হয়৷ কিন্তু বাংলাদেশ এখন সেই চুক্তি মানছে না৷” গত বছর বাংলাদেশের সঙ্গে স্থল সীমান্তর চুক্তির ফলে ছিটমহল ও অন্যান্য বিতর্কিত গ্রামের সমস্যা মিটলেও মেটেনি বেরুবাড়ির সাড়ে ১৪ বিঘা জমির সমস্যা৷ যার সুযোগ নিচ্ছে বাংলাদেশ৷
দক্ষিণ বেরুবাড়ির উপপুরপ্রধান সঞ্জীব রায় বলেন, “ছিটমহল চুক্তির সময়েই এই সমস্যা মিটিয়ে ফেলা উচিত ছিল৷ তাহলে আজ বাংলাদেশ নিজেদের মানচিত্রে এই জমি অন্তর্ভুক্ত করার সাহস পেত না৷”
প্রাক্তন বিধায়ক তথা বেরুবাড়ি সীমান্ত সুরক্ষা ও উন্নয়ন সংগ্রাম কমিটির উপদেষ্টা গোবিন্দ রায়ও একই সুরে সমস্যা জিইয়ে রাখায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন৷ এই সাড়ে ১৪ বিঘা জমি দখল করে যদি বাংলাদেশ কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে দেয়, তাহলে যাতায়াতের সমস্যায় পড়বেন নওজোয়াপাড়া গ্রামের মানুষজন৷
এ প্রসঙ্গে জলপাইগুড়ির জেলাশাসক ড. বিশ্বনাথ বলেন, “বিষয়টি নজরে এসেছে৷ এ ব্যাপারে যা যা করণীয়, তাই করা হবে৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে