১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিধায়ক দলে যোগ দিতেই বনগাঁয় বিক্ষোভ মিছিল বিজেপি কর্মীদের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 25, 2019 8:32 pm|    Updated: June 25, 2019 8:32 pm

BJP supporters stages protest as TMC MLA joins saffron camp

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: মনিরুলের পর এবার ক্ষোভের মুখে বনগাঁ উত্তরের বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস। গত কয়েক দিন আগেই দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করেন বনগাঁ উত্তরের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস-সহ বনগাঁ পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলর। তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসের বিজেপিতে যোগদান মেনে নিতে পারছেন না বনগাঁ উত্তরের নিচুতলার বিজেপির কর্মী সমর্থকেরা। বিজেপির পুরনো কর্মী সমর্থকদের অভিযোগ, ‘যাদের বিরুদ্ধে আমরা এতদিন লড়াই করে রক্ত ঝরিয়েছি তারা এখন দলের কিছু উঠতি নেতার সহযোগিতা নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করবে এটা মেনে নেওয়া যায় না।’

এদিন বিশ্বজিৎ দাসের যোগদান নিয়ে বনগাঁ শহরে একটি প্রতিবাদ মিছিল করে বিজেপির প্রতিবাদী কর্মী-সমর্থকেরা। মিছিল বনগাঁ শহরের বেশ কয়েকটি অংশ পরিক্রমা করে ত্রিকোণ পার্কে এসে শেষ করে অস্থায়ী পথসভার রূপ নেয়। বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের দাবি, বিশ্বজিৎ দাস তৃণমূলে থাকাকালীন সিন্ডিকেট রাজত্ব করে আখের গুছিয়েছেন। এমনকি তার ইন্ধনে দিনের পর বিজেপি কর্মীদের অত্যাচারিত হতে হয়েছে। লোকসভা ভোটের ফল ঘোষণার আগে পর্যন্ত তৃণমূলের হয়ে রাজনৈতিক স্বেচ্ছাচারিতা করেছেন তিনি। লোকসভা ভোটে তৃণমূলের ব্যাপক ভরাডুবির পর দলবদল করে এখন বিজেপি থেকে যাবতীয় সুযোগ সুবিধা নিতে এসেছেন। দলের দুর্দিনে কোনও হরিদাস পাল নেতারই দেখা মেলেনি। শুধুমাত্র মানুষের আশীর্বাদ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি মানুষের ভালবাসা আর নিচুতলার কর্মীদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও তৃণমূলের স্বৈরাচারী শাসনের বিরুদ্ধে মানুষ ভোট দিয়ে বিজেপিকে সমর্থন জানিয়েছে। তাই আজকের দিনে কোনও বিশ্বজিৎ দাসের বিজেপিতে প্রয়োজন নেই বলে জানান প্রতিবাদীরা। তারা এই যোগদানকে কোনওমতেই মেনে নেবেন না বলে জানান।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দিল্লিতে বিশ্বজিৎ দাসের যোগদানের দিনই প্রতিবাদী বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা বিধায়কের কুশপুতুল দাহ ও প্রতিবাদ মিছিল সংগঠিত করে। ওই ঘটনাকে আমল না দিয়ে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্ব বিধায়ক-সহ বনগাঁ পুরসভার ১২ জন কাউন্সিলরকে সংবর্ধনা জানায়। প্রতিবাদী বিজেপি কর্মীরা জানান, দুষ্টু গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভাল। চোর আর সিন্ডিকেটের তৃণমূল নেতার বিজেপিতে কোনও জায়গা নেই। পাশাপাশি দলে অরাজকতা তৈরির জন্য বিজেপির স্থানীয় কয়েক জন্য নেতৃত্বের প্রতিও এদিন ক্ষোভ উগড়ে দেন বিক্ষুব্ধ কর্মী-সমর্থকেরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement