১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শ্যামাপ্রসাদের মূর্তি শোধনকে ঘিরে শ্রীরামপুরে বিজেপি-তৃণমূল ধুন্ধুমার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 9, 2018 2:53 pm|    Updated: September 13, 2019 1:58 pm

BJP-TMC clash during Syama Prasad Mookerjee bust shuddhikaran on Hooghly

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: বিজেপির মূর্তি শোধন নিয়ে ধুন্ধুমার কাণ্ড হুগলির শ্রীরামপুরে। শুক্রবার সকালে শ্রীরামপুর স্টেশনের কাছে আরএমএস মাঠে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মূর্তি শুদ্ধিকরণের সময়ে বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের কিছু নেতার গন্ডগোল বাধে বলে অভিযোগ।

[শ্যামাপ্রসাদের মূর্তি শোধন ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ, ধুন্ধুমার কেওড়াতলায়]

বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, এদিন দুধ, গঙ্গাজল দিয়ে মূর্তি শোধনের সময়ে তৃণমূলের স্থানীয় নেতা পাপ্পু সিং কয়েকজন কাউন্সিলর ও দলবল নিয়ে আসে এলাকায়। মূর্তি শোধনে তারা বাধা দেয়। বিজেপির কয়েকজন কর্মীকে মারধরও করে। তৃণমূলের তরফে যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করে পাপ্পু সিং বলেন, বিজেপি মিথ্যা অভিযোগ করছে। যারা সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদ তৈরি করে, মনে করা হয় তারা মূর্তি ছুঁলে তা অপবিত্র হয়ে যায়। আর তাই বিজেপির মূর্তি শোধন পর্ব শেষ হলে তৃণমূলের লোকজন তা ফের শুদ্ধিকরণের জন্য যায়। তখনই তাদের লোকজনের উপর চড়াও হয় বিজেপি কর্মীরা। এছাড়া এদিন হাওড়াতেও মূর্তি শোধন কর্মসূচি পালন করে বিজেপি। সকালে হাওড়ার মন্দিরতলা এলাকায় এবং হাওড়া ময়দানে বিজেপির জেলা ভাইস প্রেসিডেন্ট সুমিত পাড়ুইয়ের নেতৃত্বে কর্মসূচি চলে। দুধ দিয়ে ধুইয়ে ও মালা পরিয়ে মূর্তি শোধন করা হয়।

ত্রিপুরায় লেনিনের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে জানাতে বাংলার বাঘ আশুতোষের পুত্র মনীষী শ্যামাপ্রসাদের মূর্তিতে কালি দেয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু পড়ুয়া। মূর্তিটি ভাঙারও চেষ্টা করা হয়। এই ঘটনায় রীতিমতো উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। বুধবার সকালে কেওড়াতলায় মূর্তি ভাঙার চেষ্টার পর দ্রুত ওই ছাত্র-ছাত্রীদের গ্রেপ্তারও করে পুলিশ। ধৃতরা সকলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের নকশালপন্থী ছাত্র সংগঠন ‘র‌্যাডিক্যাল’-এর সদস্য। ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে মূর্তি সংস্কারের কাজ শুরু করেন পুরসভার কর্মীরা। মূর্তিতে কালি লাগানোর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার থেকেই বিভিন্ন এলাকায় ‘মূর্তি শোধন’কর্মসূচি শুরু করে বিজেপি। সেই কর্মসূচিকে ঘিরে ওইদিন দুপুর থেকেই রাসবিহারী মোড় ও কেওড়তলা শ্মশানের কাছে দফায় দফায় অশান্তি বাধে। সন্ধ্যায় ঘটনার প্রতিবাদে যাদবপুর ৮বি বাসস্ট্যান্ডের কাছে বাঙালি হিন্দু অস্তিত্ব রক্ষা সমিতির ডাকা সভাতেও গন্ডগোল বাধে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু পড়ুয়া সেখানে হামলা চালায় বলে অভিযোগ।

[  মূর্তি ভাঙার রাজনীতি অব্যাহত, এবার কেরলে ক্ষতিগ্রস্ত মহাত্মা গান্ধীর মুখাবয়ব ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে