BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দক্ষিণ দিনাজপুরে ঘর থেকে উদ্ধার একই পরিবারের ৫ সদস্যের দেহ, মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধন্দ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 8, 2020 10:11 am|    Updated: November 8, 2020 10:18 am

An Images

রাজা দাস, বালুরঘাট: একই পরিবারের ৫ সদস্যদের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল দক্ষিণ দিনাজপুরের জামালপুরে (Jamalpur)। রবিবার সকালে প্রতিবেশীরা দেহগুলি দেখতে পাওয়ার পরই খবর দেয় পুলিশে। কী কারণে এই মর্মান্তিক ঘটনা? তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। শোকের ছায়া এলাকায়।

জানা গিয়েছে, জামালপুরের ওই পরিবারের কর্তার নাম অনু বর্মন। পেশায় কৃষক ছিলেন তিনি। দুই মেয়ে, স্ত্রী ও মাকে নিয়ে সংসার তাঁর। রবিবার ভোরে প্রতিবেশীরা তাঁর বাড়িতে গিয়েছিলেন ধানকাটার মেশিন আনতে। কিন্তু একাধিকবার ওই কৃষককে ডাকাডাকি করলেও তাঁদের কারও সাড়া মেলেনি। এরপরই সন্দেহ হওয়ায় ধাক্কা দিতেই খুলে যায় দরজা। তখনই স্থানীয়দের নজরে পড়ে ভয়ংকর দৃশ্য। প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায়, ঘরের মধ্যে পড়ে ছিল অনুর স্ত্রী, মা ও দুই মেয়ের ক্ষতবিক্ষত দেহ (Body)। গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলছিলেন ওই কৃষক।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে সামান্য কমল দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, সংক্রমণের নিরিখে ফের শীর্ষে কলকাতা]

কিন্তু ঠিক কি হয়েছিল শনিবার রাতে? কেন এভাবে প্রাণ গেল ৫ জনের? প্রাথমিকভাবে অনুমান, স্ত্রী, মা ও মেয়েদের খুনের পর আত্মঘাতী হয়েছেন ওই ব্যক্তি। স্থানীয়দের কথায়, মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন অনু। সম্ভবত তার জেরেই এই ঘটনা। কিন্তু সত্যিই কি শুধুমাত্র অবসাদের কারণেই শেষ হয়ে গেল তরতাজা ৫টা প্রাণ ? উত্তরের সন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ‘ট্রাম্প গেল, এবার মোদিও ফুটে যাবে’, অমিত শাহকে খোঁচা দিয়ে মন্তব্য অনুব্রতর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement