BREAKING NEWS

২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ থেকে বৃদ্ধার দেহ লোপাট!

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: January 2, 2019 3:23 pm|    Updated: January 2, 2019 3:23 pm

Body stolen from govt hospital

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: অস্বাভাবিক মৃত্যু, অথচ ময়নাতদন্তের আগেই হাসপাতাল থেকে দেহ নিয়ে চলে গেলেন পরিবারের লোকেরা! শোরগোল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। মৃতার বাড়ির লোকের বিরুদ্ধে দেহ লোপাটের অভিযোগে এফআইআর করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে শোকজ করা হয়েছে একজন নার্সকেও। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের চারজন নিরাপত্তারক্ষীকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য বেসরকারি সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু, সরকারি হাসপাতাল থেকে সকলের নজর এড়িয়ে কীভাবে দেহ নিয়ে চলে গেলেন মৃতার পরিবারের লোকেরা? প্রশ্ন উঠেছে।

ঘটনার সূত্রপাত্র রবিবার। সেদিন সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভরতি হন মেমারির বাসিন্দা আরতি মাঝি। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, অতিরিক্তি মাত্রায় ঘুমের ওষুধ খেয়েছেন তিনি। যথারীতি তাঁর চিকিৎসাও চলছিল। তবে পরিবারের লোককে ঘটনাটি পুলিশকে জানানোর পরামর্শও দেওয়া হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সোমবার সন্ধেয় মারা যান ষাটোর্ধ্ব ওই মহিলা। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে পুলিশ। নিয়ম মেনে মৃতদেহের ময়নাতদন্তের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছিলেন চিকিৎসকরা। কিন্তু, মঙ্গলবার সকালে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ থেকে উধাও হয়ে গিয়ে যায় আরতি মাঝির দেহ! হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, কাউকে কিছু না জানিয়ে দেহ নিয়ে চলে গিয়েছেন মৃতার পরিবারের লোকেরাই। এমনকী, ডেথ সার্টিফিকেটও নেননি তাঁরা। ঘটনাটি জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে যায় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।

[ কোটি টাকা মূল্যের চুল চুরি করে পলায়ন ছিনতাইবাজদের, চাঞ্চল্য কাঁথিতে]

ঘটনায় কর্তব্যরত নার্সের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়াই শুধু নয়, আরতি মাঝির পরিবারের বিরুদ্ধে থানায় দেহ লোপাটের অভিযোগ দায়ের করেছে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু প্রশ্ন হল, হাসপাতালে সকলের নজর এড়িয়ে কীভাবে দেহ নিয়ে চলে গেলেন মৃতার পরিবারের লোকেরা? সদুত্তর মেলেনি।    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে