১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বনগাঁয় গভীর রাতে কাউন্সিলরের বাড়িতে বোমাবাজি, অভিযুক্ত তৃণমূল

Published by: Bishakha Pal |    Posted: July 1, 2019 2:04 pm|    Updated: July 1, 2019 4:16 pm

Bombs hurled at Bongaon councilor's house, TMC accused

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: গভীর রাতে বোমা পড়ল বনগাঁ পুরসভার দু’নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিমাদ্রি মণ্ডলের বাড়িতে। অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি তিনি তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। বিজেপির জেলা নেতৃত্বের দাবি সেই কারণেই হিমাদ্রিকে টার্গেট করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী ও সমর্থকরা। কাউন্সিলরের বাড়িতে বোমা মারার অভিযোগ এনে এসপি অফিসে ডেপুটেশন দিয়েছে বিজেপি।

রবিবার রাত দু’টো নাগাদ বনগাঁ থানার শিমুলতলা এলাকায় কাউন্সিলরের হিমাদ্রি মণ্ডলের বাড়িতে বোমাবাজি হয়। জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে তিনি বাড়িতে ছিলেন না। স্ত্রী ও সন্তানরা ঘুমোছিলেন। মাঝরাতে বিকট শব্দ শুনে ঘুম ভেঙে যায় স্ত্রীর। নিচে এসে তিনি দেখেন চারদিক ধোঁয়ায় ভরতি। সঙ্গে বারুদের গন্ধও পান তিনি। দেখেন বারান্দায় বোমা বিস্ফোরণের চিহ্ন ছড়িয়ে রয়েছে। চারপাশে পড়ে রয়েছে পাথর কুচি, টিনের টুকরো ও পাটের দড়ির ছেঁড়া অংশ। বিস্ফোরণের শব্দে আশপাশের বাড়ির লোকজনও জেগে যায়। খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

[ আরও পড়ুন: মদ্যপ অবস্থায় স্ত্রীকে বেধড়ক মার, বাধা দিতে গিয়ে গুরুতর জখম প্রতিবেশী ]

হিমাদ্রির স্ত্রী জানিয়েছেন, তাঁর স্বামীর কোনও শত্রু নেই। এলাকার সবাই তাঁকে ভালবাসে। সম্প্রতি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে তৃণমূল এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, বনগাঁর পুরপ্রধান শংকর আঢ্য। তাঁর পালটা প্রশ্ন, মোট ১২ জন কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাহলে বেছে বেছে কেন হিমাদ্রির বাড়তেই বোমা মারতে যাবে তৃণমূল? এলাকায় এখন রাজত্ব করছে বিজেপি। তাদের বাইক বাহিনী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। অন্য কারওর পক্ষে হামলা চালানো সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু বিজেপির বক্তব্য, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে। বিজেপির জেলা সহ-সভাপতি দেবদাস মণ্ডল বলেন, পুরসভায় অনাস্থা এনেছে কাউন্সিলররা। বিজেপিতে যোগদান করেছেন তাঁরা। তাই শংকর আঢ্য ও তাঁর অনুগামীরা ভয় দেখানোর চেষ্টা করছেন।

পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আবেদন জানিয়েছেন হিমাদ্রির স্ত্রী ও সন্তানরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

[ আরও পড়ুন: নতুন করে উত্তপ্ত ভাটপাড়া, পরপর বোমা বিস্ফোরণে আতঙ্কে স্থানীয়রা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে