BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘লড়ে দলকে জেতাও’, পুরভোটের আবহে অশোক ভট্টাচার্যকে ফোন বুদ্ধদেবের, চাঙ্গা করলেন দলকে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 27, 2021 7:06 pm|    Updated: December 27, 2021 7:15 pm

Buddhadeb Bhattacharya calls Ashok Bhattacharya and messege to fight hard in upcoming Municipal Election in Siliguri | Sangbad Pratidin

অভ্রবরণ চট্টোপাধ্যায়, শিলিগুড়ি: ভোটের ময়দানে এখনও অনেকটা দাপট রয়েছে লাল শিবিরের। সদ্য শেষ হওয়া কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে (Kolkata Municipal Election) বামেদের ভোটব্যাংকে প্রাপ্তি বেড়েছে খানিকটা। প্রায় ৯ শতাংশ ভোট পেয়েছে বামফ্রন্ট। তা বাড়তি অক্সিজেন জুগিয়েছে নিঃসন্দেহে। এই আবহেই নতুন করে লড়াইয়ের বার্তা দিয়ে দলকে চাঙ্গা করলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)। জানা গিয়েছে, শিলিগুড়ি পুরসভার প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্যকে (Ashok Bhattacharya) তিনি ফোন করেছিলেন। তাঁকে শিলিগুড়িতে ভালভাবে লড়াইয়ের নির্দেশ দিয়েছেন অসুস্থ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তাঁর ফোন পেয়ে নতুন করে উদ্দীপ্ত হলেন, প্রতিক্রিয়া অশোক ভট্টাচার্যের। বললেন, ”নতুন করে লড়াইয়ের জন্য অনুপ্রেরণা পেলাম।” তবে নিজে ভোটে দাঁড়াবেন না, তাও ফের স্পষ্ট করে দিলেন।

দীর্ঘদিন ধরে শিলিগুড়ি (Siliguri) বামফ্রন্টের গড়। ২০১১ এ রাজ্যে তৃণমূলের সবুজ ঝড়ের কাছে পরাজিত হলেও, ২০১৬ সালে ফের লাল নিশান উড়িয়েছিলেন অশোক ভট্টাচার্য। বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। একইভাবে পুরসভার দখলও রেখেছিল সিপিএম। তবে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বামেদের পুরনো এই গড়েও ভোঁতা হয়েছে কাস্তে-হাতুড়ি-তারা। হেরেছেন শিলিগুড়ির ৫ বারের সিপিএম বিধায়ক, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য। ৩ মে অর্থাৎ ভোটের ফলপ্রকাশের দিন নিজের পরাজয় বুঝেই গণনাকেন্দ্র থেকে বেরিয়ে যান অশোকবাবু। হার স্বীকার করে নেন। এরপর দলের কাজে কিছুটা নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছিলেন। শারীরিক অসুস্থতা, স্ত্রী বিয়োগ – একাধিক প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে সময় অতিবাহিত করতে হয়েছে তাঁকে।

[আরও পডুন: ‘ভেড়ার দলে কে থাকবে?’, বিজেপি বিধায়কদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ত্যাগ নিয়ে বেলাগাম অনুব্রত]

এরপর চলতি মাসের গোড়াতেই নির্বাচনী রাজনীতিকে বিদায় জানানোর বার্তা দিয়ে অশোক ভট্টাচার্য ফেসবুক পোস্টে জানিয়ে দেন, শিলিগুড়ি পুরনিগমের আসন্ন ভোটে তিনি লড়বেন না। তবে নন-প্লেয়িং ক্যাপ্টেন হিসাবে দলকে জেতানোর চেষ্টা করবেন তিনি। দলের জেলা কমিটি থেকেও সরে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন অশোকবাবু। বয়সের কারণে তাঁর পক্ষে জেলা কমিটিতে আর থাকা হবে না বলে জানিয়েছিলেন অশোকবাবু।

[আরও পডুন: কুলতলিতে অব্যাহত ‘বাঘবন্দি খেলা’, ড্রোন উড়িয়েও অধরা বাঘ, নতুন কৌশল বনকর্মীদের]

কলকাতা পুরভোটের ফলাফলে বাম শিবির খানিকটা উজ্জীবিত। নতুন বছরে রাজ্যের বাকি ৩ টি পুরনিগমের সঙ্গে শিলিগুড়িতেও ভোট। ২২ জানুয়ারি ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়েছে। সব শিবিরেই প্রস্তুতি তুঙ্গে। এই আবহেই রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ফোন করেন একদা সতীর্থ অশোকবাবুকে। যেহেতু শিলিগুড়িতে বাম শিবির এখনও কিছুটা শক্তিশালী, তাই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বার্তা, ”লড়াইটা ভাল করে করতে হবে, দলকে জেতাতে হবে।” সোমবার নিজেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কমরেড বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর সঙ্গে তাঁর ফোনে আলাপচারিতার কথা জানিয়েছেন অশোকবাবু। তবে তিনি নিজে যে লড়াইয়ের মুখ হবেন না, তাও আবার জানালেন। ফোনে তাঁকে ভোটে দাঁড়ানো নিয়ে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য কোনও কথা বলেননি বলে জানান সিপিএম নেতা।

একদা যে ব্যক্তিকে সামনে রেখেই রাজ্য বামফ্রন্ট নির্বাচনী লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ত, সেই বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যই যে এখনও অনুপ্রেরণা, তা একপ্রকার স্বীকারই করলেন প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক। আর বুদ্ধবাবুও বুঝিয়ে দিলেন, অসুস্থতা তাঁর শরীরকে কাবু করতে পারে, কিন্তু আমৃত্যু তিনি সংগ্রামী ব্যক্তিত্ব। চার দেওয়ালে বন্দি থেকেও সমসময়ের খোঁজ রাখেন, সময়োপযোগী ভাবনা ভাবেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে