BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মানা হচ্ছে লকডাউন? খতিয়ে দেখতে ফুলবাড়ি-বাংলাবান্ধা সীমান্ত পরিদর্শনে কেন্দ্রীয় দল

Published by: Sayani Sen |    Posted: May 2, 2020 1:30 pm|    Updated: May 2, 2020 2:06 pm

An Images

শুভদীপ রায় নন্দী, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি লাগোয়া ফুলবাড়ি-বাংলাবান্ধা সীমান্ত পরিদর্শনে কেন্দ্রের পাঠানো ইন্টার মিনিস্টেরিয়াল সেন্ট্রাল টিম। শনিবার সকালে সীমান্ত এলাকা ঘুরে দেখেন তাঁরা। কথা বলেন বিএসএফ এবং বিজিবি’র আধিকারিকদের সঙ্গে। আদৌ সীমান্ত এলাকায় সঠিকভাবে লকডাউন মানা হচ্ছে কি না, সে বিষয়েই মূলত আলোচনা হয় তাঁদের। এরপর কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা আবারও শিলিগুড়ি সংলগ্ন রানিডাঙার সশস্ত্র সীমাবলের কার্যালয়ে ফিরে যান।

শনিবার সকাল প্রায় ১১টা নাগাদ কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিলিগুড়ি লাগোয়া ফুলবাড়ি-বাংলাবান্ধা সীমান্ত পরিদর্শনে যান। পাঁচজনের দলের সকলেই গোটা সীমান্ত এলাকা ঘুরে দেখেন। তাঁরা কথা বলেন বিএসএফের ৫১ নম্বর ব্যাটেলিয়নের কমান্ড্যান্ট কে উমেশের সঙ্গে।

 NB central team

কিন্তু কী বিষয়ে কথা হয় তাঁদের? এ বিষয়ে কে উমেশ বলেন, “কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা জানিয়েছেন জলপাইগুড়িতে নিজামুদ্দিন ফেরত বেশ কয়েকজন রয়েছেন। তাঁদের চিহ্নিত করা হয়েছে? না করা হলে তড়িঘড়ি তাঁদের চিহ্নিত করুন।” উত্তরে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যদের কে উমেশ বলেন, “আমরা বিভিন্ন গ্রামে তল্লাশি চালাচ্ছি। কোথাও কোনও অচেনা ব্যক্তি এসে বসবাস শুরু করেছেন কি না, তাও খোঁজ নিচ্ছি। কারও শরীরে বিন্দুমাত্র উপসর্গ দেখা গেলেও বিশেষ নজরদারি চালানো হচ্ছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত নিজামুদ্দিন ফেরত কারও খোঁজ পাওয়া যায়নি।”

NB-central-team

বিজিবি’র সঙ্গেও কথা বলেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। শিলিগুড়ি লাগোয়া ফুলবাড়ি-বাংলাবান্ধা সীমান্তে সঠিকভাবে লকডাউন মানা হচ্ছে কি না, তাও খতিয়ে দেখেন তাঁরা। এরপর শিলিগুড়ি সংলগ্ন রানিডাঙার সশস্ত্র সীমাবলের কার্যালয়ে ফিরে যান।

NB-central-team

এর আগে শুক্রবার দুপুরে ইন্দো-নেপাল সীমান্ত এবং বাংলা-বিহার সীমানা পরিস্থিতি দেখতে শিলিগুড়ি সংলগ্ন রানিডাঙার সশস্ত্র সীমাবলের কার্যালয় থেকে পরিদর্শনে যান ওই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। ছিলেন মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিব তথা বিশেষ প্রতিনিধি দলের চেয়ারম্যান ভিনিথ যোশি, অল ইন্ডিয়া ইনিস্টিউট অফ হাইজিন এন্ড পাবলিক হেলথের চিকিৎসক অধ্যাপক শিবানী দত্ত, ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটির উপদেষ্টা (অপারেশনাল) ব্রিগেডিয়ার অজয় গাঙ্গোয়ার, কনজিউমার অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রকের ডিরেক্টর ধর্মেশ মাকওয়ানা এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সহকারী সচিব এন বি মনি।

[আরও পড়ুন: অন্তসত্ত্বা অবস্থায় করোনার থাবা, সদ্যোজাত কোলে হাসিমুখে বাড়ি ফিরলেন যুদ্ধজয়ী]

ওই দুই আন্তঃরাজ্য এবং আন্তর্জাতিক সীমান্তে করোনা মোকাবিলায় কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে সেই বিষয়গুলি খতিয়ে দেখেন তাঁরা। এদিন প্রথমে বাংলা-বিহার সীমানা সংলগ্ন গলগলিয়া এলাকা পরিদর্শন করেন। ওই এলাকায় রাজ্য পুলিশের নাকা তল্লাশির প্রক্রিয়া, যাত্রী তল্লাশি, স্যানিটাইজেশন-সহ সার্বিক বিষয়ে পুলিশ কর্মী এবং অন্যান্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। সেখান থেকে তাঁরা শিলিগুড়ি সংলগ্ন নকশালবাড়ি ব্লকের ইন্দো-নেপাল সীমান্ত সংলগ্ন পানিট্যাঙ্কি এলাকা পরিদর্শন করেন। ইন্দো-নেপাল সীমান্তে থাকা এসএসবি’র ৪১ নম্বর ব্যাটেলিয়নের চেক পোস্ট পরিদর্শন করেন এবং সেখানকার আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর সেখান থেকে সোজা তারা এসএসবি কার্যালয়ে ফিরে যান।

দেখুন ভিডিও:

[আরও পড়ুন: কম রেশন দেওয়ার অভিযোগে ধুন্ধুমার মুর্শিদাবাদে, ডিলারের বাড়ির সামনে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement