Advertisement
Advertisement

বনগাঁয় বড়দিন উপলক্ষে ভূরিভোজ খেলেন ভবঘুরেরাও

মানবিক উদ্যোগ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যদের।

Christmas treat for homeless
Published by: Tanumoy Ghosal
  • Posted:December 26, 2018 6:37 pm
  • Updated:December 26, 2018 6:37 pm

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: বর্ষশেষে উৎসবের আমেজ রাজ্যজুড়ে। পেরিয়ে গেল বড়দিন। শীতের মিঠে রোদ গায়ে মেখে মঙ্গলবার পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে চুটিয়ে আনন্দ করল আট থেকে আশি সকলেই। বনগাঁয় রাস্তায় ঘুরে ঘুরে যাঁদের দিন কাটে, সেইসব চালচুলোহীন মানুষদের জন্য বড়দিনে ভূরিভোজের বন্দোবস্ত করেছিল একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সারাদিন, বনগাঁ মহকুমার বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে ভবঘুরেদের মাংস-ভাত খাওয়ালেন সংগঠনের সদস্যরা।

উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ মহকুমার বিভিন্ন কলেজের অধ্যাপক ও পড়ুয়ারা মিলে তৈরি করেছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘তরুছায়া’। বছরভর নানা সামাজিক কাজে মেতে থাকেন সংগঠনের সদস্যরা। যশোর রোড সম্প্রসারণের জন্য যখন রাস্তার দু’ধারে শতাব্দী প্রাচীন গাছগুলি কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন, তখন প্রথম আন্দোলনে নেমেছিলেন ‘তরুছায়া’-র সদস্যরাই। মামলা গড়িয়েছিল কলকাতা হাই কোর্টে। যদিও শেষরক্ষা হয়নি। ওভারব্রিজ তৈরির শর্তে গাছ কেটে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। কিন্তু হাল ছাড়তে নারাজ ওই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা। যশোর রোডে গাছদের প্রাণ বাঁচাতে সুপ্রিম কোর্টের যাওয়ার চিন্তাভাবনা করছেন তাঁরা। আর এবার বড়দিনে অভিনব উদ্যোগ নিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘তরুছায়া’।

Advertisement

মঙ্গলবার ছিল বড়দিন। সোমবার রাত থেকেই হাড়ি ভরতি মাংস ও ভাত নিয়ে রাস্তায় নেমেছিলেন ‘তরুছায়া’-র সদস্যরা। উদ্দেশ্য, ক্রিসমাসে বনগাঁ মহকুমার ভবঘুরেদের ভূরিভোজ খাওয়ানো। বড়দিনের সকালেও চলল ভূরিভোজ পর্ব। বছরভর দু’বেলা খাওয়াই জোটে না। তাই বছরের একটা দিন পেটভরে খেতে পেয়ে হাসি ফুটল চালচুলোহীন মানুষগুলির মুখে।

Advertisement

[ পিকনিকের খরচ বাঁচিয়ে পথশিশুদের বড়দিনের উপহার একদল তরুণ-তরুণীর]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ