৩ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘বাংলা নয়, পরিবর্তন হবে দিল্লিতে’, শিলিগুড়ি থেকে মোদির উদ্দেশে হুঙ্কার মমতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 7, 2021 3:45 pm|    Updated: March 7, 2021 5:09 pm

An Images

তারক চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি:  বিধানসভা ভোটের আগে (WB Assembly Election) একইদিনে হাইভোল্টেজ দুই সভা। কলকাতার ব্রিগেড ময়দানে প্রধানমন্ত্রী আর শিলিগুড়িতে পেট্রোপণ্যের প্রতিবাদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) পদযাত্রা, সভা। রবিবার দুপুরে একই সময়ে রাজ্যের দুই প্রান্তে  দুই হেভিওয়েটের বাকযুদ্ধ জমে উঠল। একদিকে ব্রিগেডের মেগা শো থেকে যখন বাংলায় ‘আসল পরিবর্তনে’র প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi), ঠিক একই সময়ে উত্তরবঙ্গের মাটিতে দাঁড়িয়ে পালটা আক্রমণ শানালেন মুখ্যমন্ত্রী। পদযাত্রা শেষে শিলিগুড়ির হাসমিচকের মঞ্চ থেকে বললেন, ”বাংলায় পরিবর্তন হবে না। বাংলায় তৃণমূল সরকারই থাকবে। পরিবর্তন হবে তো দিল্লিতে। আপনারা ক্ষমতা থেকে চলে যাবেন।” এরপর তাঁর আরও হুঁশিয়ারি, ”৫ রাজ্যে ভোট হবে। ৫ রাজ্যে ৫টা ছক্কা খাবেন। কেরল, তামিলনাড়ু, অসম, বাংলা – সব জায়গায় হারবেন।” 

তৃণমূলের বিরুদ্ধে লাগাতার ‘তোলাবাজি’র অভিযোগ এনেছে বিজেপি। এ দিন তার বিরুদ্ধে কড়া আক্রমণ শোনা গেল মুখ্যমন্ত্রীর মুখে। পালটা বিজেপিকেই ‘সবচেয়ে বড় তোলাবাজ’ বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে বেসরকারিকরণকে সামনে আনলেন তিনি। সেইল, রেল, এয়ার ইন্ডিয়া, কোল ইন্ডিয়া বেসরকারিকরণের কথা বলে মুখ্যমন্ত্রীর শ্লেষ, ”এসব বিক্রি করে কত টাকা তোলা আদায় করেছেন?” প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় সরকারের বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীই সবচেয়ে সরব। এ নিয়ে তিনি বারবার প্রতিবাদের স্বর পৌঁছে দিয়েছেন দিল্লিতে। বেসরকারিকরণের উলটো পথে হেঁটে রাজ্য সরকার অন্ডাল বিমানবন্দরে সরকারি শেয়ারের অঙ্ক বাড়িয়েছেন। এদিনও তাই এই ইস্যুকে তিনি মিলিয়ে দিলেন ‘তোলাবাজি’র সঙ্গে।

[আরও পড়ুন: ভোটে ইস্যু রাজনৈতিক হিংসা, রাজ্যের সব ‘শহিদ’ পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন শাহ]

পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এর আগে কলকাতার রাস্তায় ই-স্কুটার চালিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী নিজে। নবান্ন থেকে কালীঘাটের বাড়িতে ফিরেছিলেন স্কুটারে চড়ে। আর রবিবার উত্তরবঙ্গে প্রতীকী গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে দীর্ঘ পদযাত্রা করলেন মমতা। দার্জিলিং মোড় থেকে হাসমিচক পর্যন্ত বিশাল মিছিলের সামনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা নেত্রীরা। ছিলেন তারকা সাংসদ মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহানরা। মিছিল শেষে মঞ্চে উঠে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি শুরুতেই বলেন, ”মোদি, আপনি তো বাংলায় কোনও কাজ করতে আসেন না। কুৎসা করতে আসেন। সে যাই করুন, আমাদের মাথাব্যথা নেই। কিন্তু আজ প্রচার করার আগে জবাব দিন, পেট্রোপণ্যের দাম এত বাড়ল কেন? গ্যাস সিলিন্ডারের দাম বাড়লে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন বাড়ির মহিলারা। আমরা চাল দিই বিনা পয়সায় আর সেই চাল ফোটাতে গেলে ৯০০ টাকা দিয়ে গ্যাস কিনতে হচ্ছে!” 

[আরও পড়ুন: ‘ভোট না পেলে জলও মিলবে না’, প্রচারে তৃণমূল প্রার্থী তপন দাশগুপ্তর বক্তব্য ঘিরে বিতর্ক]

একুশের ভোটে বাংলা দখল করতে মরিয়া বিজেপি। নির্বাচনের প্রহর যত এগিয়ে আসছে, ততই তৃণমূল-বিজেপির বাকযুদ্ধে তপ্ত হচ্ছে বাংলার মাটি। রবিবারও ছিল তেমনই একটা দিন। একদিকে মোদি, অন্যদিকে মমতা। একে অপরের বিরুদ্ধে আক্রমণে রীতিমতো হাইভোল্টেজ প্রচারের সাক্ষী রইলেন রাজ্যবাসী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement