BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কন্যাশ্রীদের জন্য সুখবর, এপ্রিল থেকে বাড়ছে ভাতা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 19, 2018 3:01 pm|    Updated: February 19, 2018 3:01 pm

CM Mamata Banerjee hikes Kanyashree allowance

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্কুল পড়ুয়াদের কাছে ভরসার ছাতা হয়ে দাঁড়িয়েছে কন্যাশ্রী। এবার সেই ছায়া আরও দীর্ঘ হল। আগামী এপ্রিল থেকে বাড়ছে কন্যাশ্রীদের মাসিক বরাদ্দ। ৭৫০ থেকে থেকে হাজার টাকা পাবেন ছাত্রীরা।

[টোটো চালাতে বাধা ইউনিয়নের, অপমানে আত্মহত্যা যুবকের]

সোমবার বহরমপুরের সভা থেকে এদিন একথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর মস্তিষ্কপ্রসূত এই প্রকল্প কয়েক মাস আগে স্বীকৃতি পেয়েছে রাষ্ট্রসংঘের। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমীক্ষা বলছে কন্যাশ্রীর দৌলতে রাজ্যে ছাত্রীদের স্কুলছুটের পরিমাণ কমেছে। অল্প বয়সে বিয়ের প্রবণতাতেও অনেকটা রাশ টানা গিয়েছে। বহরমপুরের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন কন্যাশ্রীরা এবার আরও ভাল থাকতে পারবে। তার জন্য মাস দেড়েক পর থেকেই তাদের ভাতা বাড়ছে। এদিনের সভায় মুখ্যমন্ত্রী রীতিমতো পরিসংখ্যান তুলে ধরে দাবি করেন কেন্দ্রের বেটি বাঁচাও প্রকল্প রাজ্যের থেকে অনেক পিছিয়ে। তাঁর বক্তব্য, ‘বেটি বাঁচাও‘ প্রকল্প বরাদ্দ মাত্র ১০০ কোটি টাকা, সেখানে কন্যাশ্রীতে রাজ্য দিচ্ছে ১২০০ কোটি। বরাদ্দের নজির তুলে মুখ্যমন্ত্রীর বিদ্রুপ, কেন্দ্র যা করছে তা আসলে ‘বেটি তাড়াও’। কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শ বাংলাকে ওরা মডেল করে এগোক। কয়েকদিন আগে কন্যাশ্রী প্রকল্পের থেকে বেটি বাঁচাও প্রকল্পকে এগিয়ে রেখেছিলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, মমতার ইঙ্গিত যে রাজ্যপাল তা এই মন্তব্য স্পষ্ট। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর সংযোজন প্রায় ১ লক্ষ মানুষ সরকারি পরিষেবার আওতায় রয়েছেন। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত তাদের পাশে আছে সরকার। সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্পগুলি অর্থের অভাবে আটকে নেই। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর জন্য বিমা প্রকল্প চালু হয়েছে। কেন্দ্রের দিকে আঙুল তুলে তাঁর অভিযোগ কেন্দ্র স্বাস্থ্যসুরক্ষার জন্য প্রকল্প রাখলেও তাতে বরাদ্দ নেই। আসলে কাজ করতেই জানে না কেন্দ্র।

[নদিয়ার তৃণমূল উপপ্রধানের বাড়িতে দুষ্কৃতীদের হামলা, চলল বোমা ও গুলি]

চলতি রাজ্য বাজেটে মেয়েদের জন্য রূপশ্রী নামে একটি প্রকল্পের কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী। কোনও পরিবারের বার্ষিক আয় দেড় লক্ষ টাকার কম হলে মেয়ের বিয়েতে নগদ ২৫ হাজার টাকা পাবেন তারা। তবে একটাই শর্ত রয়েছে। তা হল মেয়েটির বয়স ১৮ বা তার বেশি হতে হবে। এই প্রকল্পের জন্য দেড় হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। প্রায় ৬ লক্ষ পরিবার এর ফলে উপকৃত হবেন। রূপশ্রীর পাশাপাশি কন্যাশ্রীতে বরাদ্দ  বাড়ায় রাজ্য জুড়ে মেয়েদের শিক্ষার ছবিটা আরও বদলাবে বলে মনে করছেন শিক্ষামহলের বড় অংশ।

[মালদহে প্রাক্তন সেনাকর্মীর বাড়িতে দুঃসাহসিক ডাকাতি, দুষ্কৃতীদের কোপে জখম ২]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে