BREAKING NEWS

৯ আষাঢ়  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

এবার কিষাণ নিধির টাকা দিক কেন্দ্র, তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হয়ে ফের মোদিকে চিঠি মমতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 6, 2021 3:59 pm|    Updated: May 6, 2021 4:43 pm

CM Mamata Banerjee writes letter to PM Modi regarding PM-Kisan Nidhi's benefir to the farmers | Sangbad Pratidin

মলয় কুণ্ডু: তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেই ফের কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা নিয়ে চাপ বাড়ালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। কৃষকদের সুবিধার্থে পিএম-কিষাণ (PM-Kisan Nidhi) নিধি প্রকল্পের সুবিধা চেয়ে ফের প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার চিঠিতে পরিসংখ্যান উল্লেখ করে তিনি জানান যে, রাজ্য নাম পাঠানো সত্ত্বেও এখনও বহু কৃষক কেন্দ্রীয় প্রকল্পটির সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এ নিয়ে আগে একাধিকবার কৃষি মন্ত্রকে আবেদন জানানো হলেও, কোনও সদর্থক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ জানান তিনি। একইসঙ্গে এবার স্পষ্টভাবে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, এবার যেন সেই প্রাপ্য টাকা দেওয়া হয়। এছাড়া এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করেও একই দাবি করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার লেখা চিঠির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পিএম কিষাণ নিধি প্রকল্পের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্য রাজ্যের তরফে ২১.৭৯ লক্ষ কৃষকের নাম পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু কেন্দ্রের পোর্টালে মাত্র ৯.৮৪ লক্ষ মানুষের নাম নথিভূক্ত হয়েছে। এ প্রসঙ্গেই তিনি উল্লেখ করেছেন, রাজ্যের কৃষকবন্ধু প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত উপকৃত হয়েছেন ৫৭.৬৭ লক্ষ কৃষক। এছাড়া ৬০ বছরের কমবয়সি কৃষকদের মৃত্যুতে ২ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা উল্লেখ করেছেন। এভাবেই দুই প্রকল্পের তুলনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এও বুঝিয়েছেন, কৃষক বন্ধু প্রকল্পের প্রশংসা করা উচিত কেন্দ্রের। সেইসঙ্গে চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ভোটের প্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কিংবা অমিত শাহ বারবার কৃষকদের কিষাণ নিধির অর্থ বাবদ ১৮ হাজার টাকা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। এবার সেই আশ্বাস বাস্তবায়িত করুন। তালিকা তো পাঠানোই হয়েছে।

[আরও পড়ুন: তৃতীয় মমতা সরকারের অর্থমন্ত্রী ফের অমিত মিত্রই? মন্ত্রিসভা গঠনের আগে তুঙ্গে জল্পনা]

প্রসঙ্গত, বাংলার মতো অবিজেপি রাজ্য কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির বাস্তবায়নে বাধা দিচ্ছে, এই অভিযোগ বারবার শোনা গিয়েছিল দিল্লির নেতাদের কাছে। এ প্রসঙ্গে তাঁরা আয়ুষ্মান ভারত, পিএম কিষাণ নিধি প্রকল্পের নাম বেশি করে উল্লেখ করতেন। আর রাজ্য সরকারের দাবি ছিল, ওই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের তুলনায় রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী কিংবা কৃষকবন্ধু প্রকল্প অনেক বেশি উপযোগী। এ নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত চরমে উঠেছিল ভোটের আগে। আর তাকে ভোটের প্রচারে কাজেও লাগিয়েছে তৃণমূল-বিজেপি দুই শিবিরই। কিন্তু একুশের বিধানসভায় বাংলার মানুষ আস্থা রেখেছেন মমতা সরকারের প্রকল্পগুলির উপরই। তাই জিতেই ফের মুখ্যমন্ত্রীর কুরসিতে মমতা। 

[আরও পড়ুন: মেদিনীপুরের অধিকারী ‘বুথে’ও ধাক্কা, তৃণমূলের চেয়ে অনেক পিছিয়ে বিজেপি]

বুধবার তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি (PN Narendra Modi)। পালটা টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী আশাপ্রকাশ করেছিলেন, এবার কেন্দ্রের সহযোগিতা পাবে বাংলা। আর তার পরেরদিনই কিষাণ নিধির টাকা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement