BREAKING NEWS

১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘মেয়েটা এতক্ষণ পড়ে থাকল, কেন জানতে পারলেন না?’, আইসিকে ভর্ৎসনা মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 21, 2018 7:17 pm|    Updated: February 21, 2018 7:17 pm

CM rebukes IC Of Kushmundi PS in administrative meeting in South Dinajpur

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কুশমুণ্ডি ধর্ষণকাণ্ডে পুলিশের ভূমিকায় ক্ষুদ্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসনিক বৈঠকে ধমক খেলেন কুশমুণ্ডি থানার আইসি। ক্ষুদ্ধ মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, ‘মেয়েটা এতক্ষণ পড়ে রইল, কেন খবর পেলেন না? আপনারা এলাকা ঘোরেন না?’ এলাকায় কমিউনিটি পুলিশি আরও জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[ফিরল নির্ভয়া স্মৃতি, ধর্ষণের পর আদিবাসী তরুণীর উপর নারকীয় অত্যাচার]

দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমুণ্ডিতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক আদিবাসী মহিলা। ধর্ষণের পর, ওই মহিলার উপর চলে পাশবিক নির্যাতন। যৌনাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় লোহার রড। এখন আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই মহিলা ভরতি মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। জানা গিয়েছে, বহু বছর আগেই নির্যাতিতা ওই মহিলার বাবা-মা মারা গিয়েছেন। তাঁর বিয়ে হয়েছিল বিহারে। কিন্তু, পরে মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় ওই মহিলা ফিরে আসেন কুশমুণ্ডির দেহাবন্দ ঘাটপাড়া এলাকায়। পাড়া-প্রতিবেশীদের দেওয়া খাবারেই দিন চলত তাঁর। শিবপুজো উপলক্ষ্যে বাউল গানের আসর বসেছে কুশমুণ্ডির লাগোয়া উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারে। দিন কয়েক আগে সেখানে গিয়েছিলেন ওই মহিলা। রাতে ফেরার পথে, তাঁকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে কয়েকজন দুষ্কৃতী। ঘটনার পর রাতভর স্থানীয় একটি ব্রিজের নিচে পড়েছিলেন নির্যাতিতা। সকালে ঘটনাটি নজরে আসার পর থানায় পুলিশে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দা। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার প্রথমে কুশমুণ্ডি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। পরে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল হয়ে আপাতত মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি নির্যাতিতা। অবস্থা রীতিমতো আশঙ্কাজনক। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গণধর্ষণ তো হয়েইছে, ওই মহিলার যৌনাঙ্গেও ধাতব পদার্থ ঢুকিয়ে দিয়েছে দুষ্কৃতীরা।

[আরএসএস অনুগামী স্কুলগুলির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ, হুঁশিয়ারি শিক্ষামন্ত্রীর]

মুখ্যমন্ত্রী এখন উত্তরবঙ্গে। মঙ্গলবার মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নির্যাতিতাকে দেখতেও গিয়েছিলেন তিনি। আর বুধবার দক্ষিণ দিনাজপুরে প্রশাসনিক বৈঠকে কুশমুণ্ডি ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখে পড়লেন কুশমুণ্ডি থানার আইসি। রীতিমতো ধমক খেলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী কুশমুণ্ডি থানার আইসির কাছে জানতে চান, ‘মেয়েটা এতক্ষণ পড়ে রইল, কেন খবর পেলেন না? এত সিভিক পুলিশ, ভিলেজ পুলিশ রয়েছে। আপনারা এলাকায় ঘোরেন না?’ এরপরই মিন মিন করে কিছু একটা বলার চেষ্টা করেন ওই পুলিশ আধিকারিক। কিন্তু, তাতেও আমল দেননি মুখ্যমন্ত্রী। কমিউনিটি পুলিশিংয়ের উপর জোর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

[বসন্তে রাজ্য জুড়ে দাপট দেখাচ্ছে ‘বসন্ত’, কাবু আট থেকে আশি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement