৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বছর খানেক আগে বসিরহাটে দাঙ্গার নেপথ্যে বিএসএফের ভূমিকাকে দায়ী করলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ শনিবার দুপুরে বসিরহাট কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী নুসরত জাহানের সমর্থনে সভা করতে গিয়ে তাঁর অভিযোগ, ‘বাংলাদেশের সীমান্ত খুলে, লোক ঢুকিয়ে দাঙ্গা বাঁধিয়েছে বিএসএফ৷ তাঁরাই অশান্তি করে দিয়ে, মানুষের ক্ষতি করে দিয়ে চলে গেছে৷’ তিনি গুজরাট দাঙ্গার প্রসঙ্গ তুলে নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে আরও একবার ক্ষোভ উগরে দেন৷ বলেন, ‘‘যখন গুজরাটের দাঙ্গা নিয়ে দেশ তোলপাড়, আমি সেদিন সংসদে ছিলাম৷ অটলজি তাঁকে পাশে বসিয়ে বলেছিলেন, ‘রাজধর্ম পালন করো৷’ আমরা ভেবেছিলাম, উনি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর একটু বদলেছেন৷ কিন্তু না, কিচ্ছু বদলাননি উনি৷’’

বাংলায় ভোটের সময় কেন বহিরাগতদর আনাগোনা বাড়ছে? উত্তরপ্রদেশের মানুষ টাকা নিয়ে বাংলায় ঢুকছে, ভোটে প্রভাব ফেলার চেষ্টা করছে৷ বিএসএফ, সীমান্ত সামলান৷ এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেইসঙ্গে সাবধান করলেন সীমান্তরক্ষী বাহিনীকেও৷ পাশাপাশি জেলায় দলের নেতাদের সতর্ক করে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷

[আরও পড়ুন: বিজেপিতে যোগের রাস্তা তৈরি করেছেন শুভেন্দু! বেফাঁস মন্তব্য করে বিপাকে বিপ্লব]

শনিবার দুপুরে বসিরহাট কেন্দ্রের বিভিন্ন জায়গায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচার কর্মসূচি রয়েছে৷ হাড়োয়ার শংকরপুরে প্রথম সভাটি করেন তিনি৷ সেখান থেকেই তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশের ১০ জন লোক এখানে লুকিয়ে ছিল৷ পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে৷ কেন বাংলার ভোটে বহিরাগতরা আসছে? আমি নেতাদের সতর্ক করছি, বাইরে কিন্তু লোকজন ঘুরে বেড়াচ্ছে টাকা নিয়ে৷ অজান্তে ক্ষতি করে চলে যাবে৷ বিএসএফ-কে বলছি, সীমান্তে পাচার সামলাও৷ বিজেপির হয়ে কাজ কোরো না৷ আর মনে রাখবেন, রাত জেগে পাহারা আমরাও দিচ্ছি৷’ 

[আরও পড়ুন: ‘ঘৃণা করলে ফেরত পাবেন ভালবাসা’, মোদিকে বার্তা রাহুলের]

দিল্লিতে বিজেপি সরকারকে উৎখাতের ডাক দিয়ে তাঁর বক্তব্য, ‘মনে রাখবেন, নরেন্দ্র মোদি সরকারকে উপড়ে ফেলার ক্ষমতা কিন্তু একমাত্র তৃণমূলই রাখে৷ আর কেউ সেই ক্ষমতা রাখে না৷ এই ভোট ভবিষ্যৎ তৈরির ভোট৷ সারা দেশকে ভয় দেখিয়ে ক্ষমতা কেড়ে নিয়েছে৷’ এদিনের জনসভা থেকে তিনি ফণী নিয়ে নরেন্দ্র মোদির ভূমিকাকেও কটাক্ষ করেছেন৷ প্রশ্ন তুলেছেন, ফোনে খোঁজখবর নেওয়ার হলে কেন মোবাইল নম্বরে ফোন করেননি মোদি৷ 

[আরও পড়ুন: জঙ্গলমহলের ভোটে মাওবাদী প্রভাবিত এলাকায় কড়া নজর কমিশনের]

বসিরহাট কেন্দ্রের তারকা প্রার্থী নুসরতের সমর্থনে ভোট চাইতে গিয়ে মমতা সম্প্রতি ওঠা বিতর্কেরও জবাব দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘নুসরত ছোট মেয়ে, অত বোঝে না৷ ওকে কেউ জোর করেছে, তাই একটা মন্তব্য করে ফেলেছে৷ ও আমাদের পার্টির স্ট্যান্ড ছাড়া কিছু বলবে না৷ আপনারা নির্ভয়ে ওকে নির্বাচিত করুন৷ আমি তো আছি, সব বুঝিয়ে দেব৷’ হাড়োয়ার সভা থেকে এক ঢিলে অনেকগুলি পাখি মারার চেষ্টা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো, তা স্পষ্ট৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং