BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বাদুড়ের ভয়ে কাঁপছে বাংলা, জেলায় জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে নিপা আতঙ্ক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 28, 2018 10:02 am|    Updated: May 28, 2018 10:02 am

Control room in Malda as Nipah virus sparks panic in Bengal

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রোগটা ছড়িয়েছে দক্ষিণ ভারতে। কেরলে মারা গিয়েছেন ১০ জন। তবে এ রাজ্যে এখনও পর্যন্ত নিপায় আক্রান্তের সন্ধান মেলেনি। কিন্তু, তাতে কী! বাদুড়ের নামেই কাঁপছেন সাধারণ মানুষ। জেলায় জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে নিপা-আতঙ্ক। পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম, মঙ্গলকোট, কাটোয়া ও আউশগ্রামে বাদুড়ের উপর কড়া নজর রাখছেন গ্রামবাসীরা। মুর্শিদাবাদের ইসলামপুরে ‘বাদুড়তলা’ এড়িয়ে ঘুরপথে যাতায়াত করছেন গ্রামবাসীরা। উত্তরবঙ্গের মালদহে আবার দক্ষিণ ভারতের নিপা সংক্রমণের খবর জানতে খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম।

[জঙ্গলমহলের পর ট্যারেন্টুলা আতঙ্ক ছড়াচ্ছে আরামবাগেও]

পূর্ব বর্ধমানে জেলায় এখনও পর্যন্ত একজনও নিপায় আক্রান্ত হননি। কিন্তু, হতে কতক্ষণ! তাই বাদুড়দের এড়িয়ে চলছেন গ্রামবাসীরা। জানা দিয়েছে, কেতুগ্রামের অট্টহাসে পুরনো পাকুড়গাছের পাশে সতীপীঠ। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, প্রায় দু-তিন প্রজন্ম ধরেই সতীপীঠ লাগোয়া এলাকার দু-তিনটি গাছে বাদুড়দের দেখে আসছেন তাঁরা। কাটোয়ার আকাইহাট, মঙ্গলকোটের পালিগ্রাম, আউশগ্রামের সরগ্রামেও পুরানো গাছগুলিতে হাজার হাজার বাদুড়ের বাস। ছড়িয়েছে নিপার আতঙ্ক। গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, কোনও বাদুড় মারা গেল কি না কিংবা বাদুড়ের খাওয়া ফল গাছের নিচে পড়ে থাকছে কি না, সেদিকে নজর রাখছেন তাঁরা। সতর্ক স্থানীয় প্রশাসনও। কাটোয়ার মহকুমাশাসক সৌমেন পাল জানিয়েছেন, অস্বাভাবিক কিছু দেখলেই প্রশাসনের নজরে আনার জন্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  মুর্শিদাবাদের ইসলামপুর চকে আবার বাদুড়তলা দিয়েই নিত্য যাতায়াত গ্রামবাসীদের। গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে ভৈরব নদী। নদের তীরে পুরনো বটগাছটি বাদুড়ের আস্তানা। সেই সুবাদেই এলাকাটির নাম বাদুড়তলা। নিপার আতঙ্কে এখন ওই এলাকাটি এড়িয়ে ঘুরপথে যাতায়াত করছেন গ্রামবাসীরা। তাঁদের দাবি, বাদুড় তাড়ানোর উদ্যোগ নিতে হবে সরকারি আধিকারিকদেরই।

[অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় ১৪বার বদলি! স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন সরকারি কর্মীর]

একই ছবি উত্তরবঙ্গে। মালদহ থেকে কাজের খোঁজে প্রতিবছর দক্ষিণে ভারতে যান বহু মানুষ। দক্ষিণ ভারত থেকে যাঁরা ফিরছেন, তাঁদের কারও শরীরে নিপা ভাইরাসের সংক্রমণের হয়েছে কি না, তা জানতে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের দপ্তরে খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম। চালু হয়েছে হেল্পলাইন নম্বরও। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সৈয়দ শাহজাহান সিরাজ বলেন, ‘নিপা ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য জানাতে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। সংক্রমণের খবর পেলেই দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা।‘

ছবি: জয়ন্ত দাস

[দারিদ্রর সঙ্গে যুঝে উচ্চশিক্ষা, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে সম্মানিত সুবীর]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement